Wednesday, May 22, 2024

লালমাই পাহাড়ে কাজুবাদামের বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা!

লালমাটির এই পাহাড়ে বিশাল এলাকা জুড়ে এই বাদামের বাগানটি গড়ে তোলেন মজুমদার চা বাগানের মালিক তারিকুল ইসলাম মজুমদার। তিনি এই পরিত্যাক্ত বিশাল জায়গাটি কাজের লাগানোর জন্য এই বাগানটি প্রতিষ্ঠা করেন। বর্তমানে তার বাগনের প্রতিটি গাছে দোল খাচ্ছে কাজুবাদমের মুকুল। কুমিল্লার লালমাই পাহাড়ে চাষ হচ্ছে কাজুবাদাম।

পাহাড়ের এই বিশাল জায়গাটি পড়ে থাকতে দেখে মজুমদার চা বাগানের মালিক তারিকুল ইসলাম মজুমদার ২০২০ সালে সেখানে মাত্র ৮০টি চারা দিয়ে কাজুবাদামের চাষ শুরু করেন। বর্তমানে বাগানে ২৮০ টি গাছ রয়েছে। তবে বৃষ্টি কম হওয়ায় সেচ নিয়ে শঙ্কায় থাকলেও বর্তমানে পানির পাম্প বসিয়ে বৃষ্টি ঘাটতি পূরণ করতে হচ্ছে। কাজুবাদাম ছাড়াও পাহাড়ের পরিত্যাক্ত জমিতে চা পাতা, কাজুবাদাম, কফি,হলুদ, আলু, কচুর ছড়াসহ আরো অনেক কিছুর চাষ হচ্ছে।

কাজুবাদাম বাগানের শ্রমিক রাজু বলেন, বিগত ৩ বছর যাবত এই বাগানের পরিচর্যা করছি। এাখানে কাজুবাদামের পাশাপাশি কফিও চাষ হয়। পাহাড়ের মাটি খুব উর্বর। এবছর প্রায় সবগুলো গাছে বাদামের মুকুল এসেছে। ভালো ফলন হলে মালিক বলেছে কাজুবাদামের চাষ আরো বড় করবেন। আশা করছি ভালো ফলন হবে।

আরেক শ্রমিক দিপালী শিং বলেন, পাহাড়ের মাটি কাজুবাদাম চাষের জন্য খুবই উপযোগী। এবছর ভালো ফলন হলে আগামীতে আরো বড় এরিয়া নিয়ে বাগান করবেন বলেছেন।

জেলঅ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর উপপরিচালক মো.মিজানুর রহমান বলেন, কুমিল্লায় শুধু লালমাই পাহাড়েই কাজুবাদামের চাষ হয়। আমরা লালমাইয়ের পাহাড়সহ উচু পরিত্যক্ত ভূমিতে কাজুবাদাম চাষে কৃষকদের উৎসাহিত করছি। এতে মোট ২-৩ হেক্টর জায়গায় এই বাদামের চাষ হয়।

এই সম্পর্কিত আরও খবর

সর্বশেষ আপডেট