Tuesday, April 23, 2024

দ্বিগুণ লাভের আশায় পটল চাষে ঝুঁকছেন চাষিরা

এই উচ্চ ফলনশীল সবজিটি শীতকাল ছাড়া সারাবছরই চাষ করা যায়। এর চাষে ঝামেলা কম। এছাড়াও বাজারে এর চাহিদা ও দাম দুটোই ভাল। তাই কৃষকরা এর চাষে ঝুঁকছেন। চলতি বছর কৃষকরা পটল চাষে দ্বিগুণ লাভের আশা করছেন।পটল চাষে গাইবান্ধার কৃষকদের আগ্রহ বাড়ছে। গাইবান্ধা জেলায় প্রায় ৫ হাজার ৭শত ৯৫ হেক্টর জমিতে শাক-সবজি চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে।

জেলার কৃষকরা ব্যাপক পরিমানে পটলের চাষ করেছেন। বর্তমানে তারা সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত গাছের পরিচর্যা ও পটল তোলায় ব্যস্ত সময় পার করছেন। এছাড়াও আরো নতুন নতুন অনেক পটল চাষির সৃষ্টি হচ্ছে। এই জেলার অনেক কৃষক পটল চাষ করে স্বাবলম্বী হয়েছেন।

সাদুল্লাপুর উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়নের চাঁদকরিম এলাকার কৃষক বাদল মিয়া বলেন, এবছর আমি প্রায় ৭০ শতাংশ জমিতে পটলের চাষ করেছি। চাষে মোট ৫৫-৬০ হাজার টাকা খরচ হবে। বাম্পার ফলন হলে আশা করছি ৯০-৯৫ মণ পটল পাবো। আর এর চাষে ঝুঁকি কম। আশা করছি প্রায় দেড় লাখ টাকা আয় করতে পারবো। অন্যান্য ফসলের তুলনায় পটলের চাষে লাভ বেশি।

আরও কয়েকজন পটলচাষি বলেন, তারা দীর্ঘদিন যাবত পটল চাষের সাথে যুক্ত আছি। এর চাষে দ্বিগুণ লাভ করা যায়। এবছর আবহাওয়া ভাল থঅকায় বেশি ফলন পাচ্ছি। আশা করছি লাভবান হবো। বাজারে বেশ ভাল দামে বিক্রি করতে পারছি।

এই সম্পর্কিত আরও খবর

সর্বশেষ আপডেট