Saturday, February 24, 2024

দেশে প্রথমবার কলাগাছের সুতায় তৈরি দৃষ্টিনন্দন শাড়ি

সম্প্রতি বান্দরবানে নারীদের অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী করতে পার্বত্য এলাকার কলাগাছ থেকে সুতা তৈরি করে বিভিন্ন সৌখিন হস্তশিল্প তৈরির প্রশিক্ষণ কার্যক্রম শুরু করেন জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি। বাংলাদেশে প্রথমবার তৈরি করা হয়েছে কলাগাছের সুতা থেকে শাড়ি। কাজ শুরুর একমাসের মধ্যেই পার্বত্য জেলা বান্দরবানে আকর্ষণীয় ও দৃষ্টিনন্দন এই শাড়ি তৈরি করা হয়।

জেলায় যোগদানের পরপরই উন্নয়নসহ বিভিন্ন জনকল্যাণকর কাজ করে প্রশংসিত হয়েছেন এই জেলা প্রশাসক। নানা প্রতিকূলতার পথ পাড়ি দিয়ে অত্যন্ত চ্যালেঞ্জপুর্ণ কলাগাছের সুতায় তৈরি শাড়ির কাজটি সম্পন্ন করেছেন। আর এই শাড়িটি বুনতে বান্দরবানের জেলা প্রশাসকের আহবানে সাড়া দিয়ে মৌলভীবাজার থেকে বান্দরবানে ছুটে এসেছেন প্রশিক্ষক রাধাবতী দেবী।

প্রশিক্ষক রাধাবতী দেবী জানান, বাংলাদেশে বিভিন্ন সুতা দিয়ে শাড়ি তৈরি হয় তবে দেশে প্রথমবার বান্দরবান জেলায় আমি বান্দরবানের জেলা প্রশাসকের অনুরোধে ও সার্বিক সহযোগিতায় কলাগাছের সুতা থেকে একটি শাড়ি তৈরি করলাম। প্রথম পর্যায়ে একাধারে ১৫ দিন সময় দিয়ে এবং ১ কেজি কলাগাছের আশের সুতা দিয়ে এই আকর্ষণীয় শাড়ি তৈরি হয়েছে এবং সবকিছু ঠিক থাকলে আগামীতে আরো কম সময়ে ও কম খরচে আরো মসৃণ ও উন্নতমানের শাড়ি তৈরি করা সম্ভব হবে।

মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর বান্দরবানের উপ-পরিচালক আতিয়া চৌধুরী বলেন, আমাদের জেলা প্রশাসকের অনুপ্রেরণায় আমরা বান্দরবানবাসী গর্বিত। একজন নারীবান্ধব জেলা প্রশাসকের কারণে দুর্গম বান্দরবানের বিভিন্ন পাড়ার নারীরা আজ সরকারি বিভিন্ন সহায়তা পাচ্ছে। জেলা প্রশাসকের অক্লান্ত পরিশ্রমের কারণে আজ কলাগাছের সুতা থেকে শাড়ি হলো আর আগামীতে আরো নিত্যনতুন সামগ্রী উৎপাদন হবে যাতে নারীদের অর্থনৌতিক উন্নয়নের গতি আরো তরান্বিত হবে।

বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভাষক ও এই শাড়ি তৈরির সার্বিক সহযোগী সাই সাই উ নিনি জানান, বান্দরবানের নারীদের অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি প্রায় সময়ই ভাবেন। আর জেলা প্রশাসকের এই দুরদর্শী চিন্তার ফসল আজকের এই ১৩ হাত তৈরি নতুন এক দৃষ্টিনন্দন শাড়ি। এই শাড়ির তৈরির ফলে বাংলাদেশে বান্দরবানের নাম আরেকবার প্রচার হবে এবং এখানকার কলাগাছের আশ থেকে যে সুতা হয় সেই সুতা দিয়ে পরিবেশবান্ধব শাড়িটি সকলের কাছে দ্রুত সময়ে পৌঁছে যাবে বলে আমাদের আশাবাদ।

জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি বলেন, বান্দরবানে নারীদের উন্নয়নের কথা চিন্তা করে কলাগাছ থেকে আশ তৈরি ও পরর্বতীতে সেই আশ থেকে বিভিন্ন হস্তশিল্প ও সৌখিন বিভিন্ন দ্রব্যাদি তৈরির জন্য বান্দরবান জেলা প্রশাসন একটি পাইলট প্রকল্প গ্রহণ করে। প্রকল্পের আওতায় এই পর্যন্ত কয়েকটি ধাপে স্থানীয় প্রায় ৪শ নারীদের কয়েক দফায় প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয় এবং তাদের প্রশিক্ষণের পাশাপাশি বিভিন্ন হস্তশিল্প তৈরি করে তাদের ভাতা প্রদান করা হয় যাতে তারা আগ্রহী হয় এবং অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী হয়।

জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি আরো বলেন, নারীদের অর্থনৈতিক ভিত্তি মজবুত করতেই প্রথমতেই জেলা সদরে এই কার্যক্রম শুরু হলেও পরর্বতীতে লামা, রুমা, আলীকদম ও থানচি উপজেলাতে এই পাইলট প্রকল্পের আওতায় নারীদের প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে। আমাদের নারীরা এই প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বুক ফোল্ডার, টেবিল মেট, পাপোশ, শো পিচ, কানের দুল, কলম দানিসহ বিভিন্ন পরিবেশবান্ধব হস্তশিল্প তৈরি করছে আর এগুলো ভালো দামে বিক্রিও হচ্ছে।

জেলা প্রশাসক আরো বলেন, এত কিছুর পর আমার চিন্তার মাধ্যমে নানা প্রতিকুলতার পথ পাড়ি দিয়ে অত্যন্ত চ্যালেঞ্জ নিয়ে আমরা কলাগাছের সুতা থেকে একটি দৃষ্টিনন্দন শাড়ি তৈরি করতে পেরেছি যা অত্যন্ত সুন্দর ও আকর্ষণীয় হয়েছে, যেই শাড়ির নাম দেয়া হয়েছে ‘রাধাবতী’।

এই সম্পর্কিত আরও খবর

সর্বশেষ আপডেট