Wednesday, April 17, 2024

৫-৭ কেজি ওজন বাড়িয়েছিলাম : অপূর্ব

শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম দীপ্ত প্লে-তে মুক্তি পেয়েছে জিয়াউল ফারুক অপূর্ব অভিনীত ওয়েব ফিল্ম ‘ইউএনও স্যার’। যেখানে একটি উপজেলার ইউএনও’র ভূমিকায় অভিনয় করেছেন অপূর্ব। ‘শুধু প্রেমে না, কিছু মানুষ বাঁচে দেশপ্রেমে’—সেই দেশপ্রেমের প্রমাণ দেখাতে পর্দায় এলেন অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্ব।

শনিবার সন্ধ্যায় দীপ্ত টিভির আঙিনায় অনুষ্ঠিত হয় বিশেষ প্রদর্শনী। সেখানে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হলে অপূর্ব জানান, চরিত্রটির জন্য তাঁকে বিশেষ প্রস্তুতি নিতে হয়েছিল। লুকে পরিবর্তন আনাসহ ৫-৭ কেজি ওজনও বাড়াতে হয়েছিল তাঁকে।

পর্দায় দেখা যায়, ব্যক্তিগত ও পেশাগত দায়বদ্ধতার বেড়াজালে দেশের প্রতি ভালোবাসার চ্যালেঞ্জ নিয়ে একজন সরকারি পদস্থ কর্মকর্তা কী করতে পারেন। বাস্তব ঘটনার ছায়া অবলম্বেনে নির্মিত এই চলচ্চিত্রে উঠে এসেছে মফস্বল শহরের সামাজিক বাস্তবতা। যেখানে স্বামী খুন হয়ে মারা যাওয়ার পর এক নারী প্রতিনিয়ত তাঁর আশপাশের মানুষের মাধ্যমে নানাভাবে হয়রানির শিকার হয়।

ফিল্মটিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ও ইউএনও’র ভূমিকায় ভিন্ন লুকে দেখা যায় অপূর্বকে। তিনি বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস লাইফ ও ইউএনও—এই দুটি চরিত্রের জন্য আলাদা প্রস্তুতি ছিল। লুকের পাশাপাশি ইউএনও চরিত্রটির জন্য ৫-৭ কেজি ওজন বাড়িয়েছিলাম।’

এতে অপূর্বর সহশিল্পী হিসেবে অভিনয় করেছেন তানজিম সাইয়ারা তটিনী। তরুণ এই অভিনেত্রী প্রসঙ্গে অপূর্ব বলেন, ‘ও (তটিনী) নতুন হিসেবে খুবই ভালো করছে। একজন ডেডিকেটেড (নিবেদিত প্রাণ) অভিনেত্রী। চেষ্টা করে, চরিত্র নিয়ে ভাবে, ওর ডেডিকেশন লেভেল ভালো। এটা যদি ও ধরে রাখে, অনেক দূর যাবে।’

ইউএনও স্যার-এ অপূর্ব-তটিনী ছাড়াও অভিনয় করেছেন ইন্তেখাব দিনার, জয়রাজ, নরেশ ভুইয়াসহ আরও অনেকে। ‘ভিশন’ নিবেদিত এই ফিল্ম প্রযোজনা করেছে কাজী মিডিয়া লিমিটেড।

আহসান হাবিবের গল্প ও মেজবাহ উদ্দিন সুমনের চিত্রনাট্যে এটি পরিচালনা করেছেন সৈয়দ শাকিল। তিনি বলেন, ‘আমার জানা মতে প্রশাসনিক ক্যাডার সার্ভিস চরিত্র নিয়ে বাংলাদেশে এটাই প্রথম কাজ। একটা ভিন্ন আঙ্গিকের গল্প সহজভাবে উপস্থাপনের চেষ্টা করেছি। দীপ্ত প্লে কর্তৃপক্ষ, শিল্পী, কলাকুশলীসহ সবার আন্তরিক প্রচেষ্টা ছিল কাজটি ভালো করার। সবার প্রতি আমার কৃতজ্ঞতা। আশা করছি কাজটি দর্শকদের ভালো লাগবে।’

এই সম্পর্কিত আরও খবর

সর্বশেষ আপডেট