Wednesday, May 22, 2024

লাভজনক হওয়ায় মিষ্টি আলু চাষে ঝুঁকছেন পীরগঞ্জের চাষিরা

চলতি বছর আবহাওয়া ভাল থাকায় ফলন বেশি পাচ্ছেন। এতে কৃষকের মুখে হাসি ফুটেছে। ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে মিষ্টি আলু চাষে কৃষকের আগ্রহ বাড়ছে। এর চাষে তুলনামূলক খরচ কম ও উচ্চফলনশীল হওয়ায় কৃষকরা এই আলু চাষে ঝুঁকে পড়ছেন।

চলতি বছর কন্দাল ফসল উন্নয়নের প্রকল্প শুরু করা হয়। সেই প্রকল্পের আওতায় এই উপজেলায় ১৬৫ হেক্টর জমিতে মুড়াসাকি জাতের মিষ্টি আলু চাষ করা হয়। প্রকল্পের ৫৫০ জন কৃষক তাদের ২০ শতাংশ জমিতে এই আলুর চাষ করেছেন।

উপজেলার পাটুয়া গ্রামের কৃষক নবাব আলী ও গোলাম রব্বানি বলেন, এবছর আমরা দু’জন ২০ শতক করে ৪০ শতক জমিতে মিষ্টি আলুর চাষ করেছি। গাছের কোনো রোগবালাই হয়নি। এবছর আবহাওয়া ভাল আছে আশা করছি ভাল ফলন পাবো। চাষে ৪ হাজার করে মোট ৮ হাজার টাকা খরচ হয়েছে।

একই এলাকার মো. একরামুল ইসলাম বলেন, আমরা আগে অন্যান্য ফসলের চাষ করতাম। অন্যান্য ফসলের তুলনায় চাষে খরচ কম হয় বলে এখন মিষ্টি আলুর চাষ করছি। চাষে ৫ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। আশা করছি বাম্পার ফলন হবে। এবছর ২০ শতক জমিতে চাষ করেছি। আমরা মিষ্টি আলু চাষে সফলতা পাচ্ছি এটা দেখে আমাদের পাশের গ্রামের কৃষকরাও মুড়াসাকি জাতের মিষ্টি আলু চাষে আগ্রহী হচ্ছেন।

উপজেলার উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা মিজানুর রহমান বলেন, চলতি বছর পীরগঞ্জ উপজেলার ১০টি ইউনিয়নে মোট ১৬৫ হেক্টর জমিতে মিষ্টি আলুর চাষ হয়েছে। আমরা কৃষকদের কন্দাল ফসল উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় এনে বীজ ও সার বিতরণ করে মিষ্টি আলু চাষে উৎসাহিত করছি।

এই সম্পর্কিত আরও খবর

সর্বশেষ আপডেট