Friday, June 2, 2023

বিঘাপ্রতি লাভ ১২ হাজার, খুশি বোরো চাষিরা!

অনুকূল আবহাওয়া ও নতুন উদ্ভাবিত ভাল মানে বীজের কারণেই এমন ফলন হয়েছে বলে মনে করেন কৃষকরা। বর্তমানে কৃষকরা উৎসব মুখর পরিবেশে জমি থেকে ফসল কেটে ঘরে তুলছেন। বর্তমান বাজারদর ভাল থাকায় কৃষকরা বিঘা প্রতি ধানে ১২ হাজার টাকা লাভ করতে পারছেন। বগুড়ায় বোরো ধানের বাম্পার ফলনে খুশি চাষিরা।

বগুড়া জেলার ১২টি উপজেলার প্রতিটি গ্রামেই মৌসুমি বোরো ধানের চাষ করা হয়েছে। এই অঞ্চলের কৃষকরা কাজল লতা, কাটারি ভোগ, ব্রি ধান-২৮, ব্রি ধান-৮১, ব্রি ধান-৯০, ব্রি ধান-৯১, ব্রি ধান-১০০ ধান, জীরাশাইল জাতের ধানের চাষ করেছেন। অনুকূল আবহাওয়া ও সঠিক পরিচর্যার কারণে কৃষকরা কম খরচে বেশি ধান উৎপাদন করতে পেরেছেন। বর্তমানে প্রতিমণ ধান ১৩০০-১৪০০ টাকা দরে বিক্রি করে কৃষকরা লাভবান হতে পারছেন। এতে কৃষকরা বিঘাপ্রতি ২৩-২৪ মণ ফলন পেয়েছেন।

বগুড়ার ১২টি উপজেলার প্রতিটি গ্রামে উচ্চ ফলনশীল জাতের বোরো ধানের চাষ করা হয়েছে। চলতি মৌসুমে ১ লাখ ৮৭ হাজার ১৯৫ হেক্টর জমিতে বিভিন্ন জাতের ধানের চাষ করা হয়েছে। ধানের অধিক ফলন ও বাড়তি দামে খুশি কৃষকরা।

নন্দীগ্রাম ও কাহালু উপজেলার জসিমুর রহমান, সাদিক হোসেনসহ একাধিক কৃষক বলেন, আমরা অনেক আগে থেকেই ধান চাষ করে আসছি। এখন নতুন উদ্ভাবিত উচ্চ ফলনশীল জাতের বোরো ধানের চাষ করছি। এর চাষে জমিতে অধিক ফলন পেয়েছি। আর শুকনো ধান প্রতিমণ ১৩০০-১৪০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। বাজারদর এমন থাকলে আমরা লাভবান হতে পারবো। এছাড়াও ধানের বর্তমান বাজারদর ভাল। এখন বাজারে প্রতিমণ কাঁচা ধান ৯৫০-১০০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

শাজাহানপুর উপজেলার কৃষক তাজনুর রহমান বলেন, এবছর আমি ৩৫ বিঘা জমিতে বোরো ধানের চাষ করেছি। বিঘাপ্রতি গড়ে প্রায় ২৩-২৪ মণ করে ফসল এসছে। আর আমার প্রতি বিঘাতে প্রায় ১৫-১৬ হাজার টাকা ব্যয় হয়েছে। এতে বিঘাপ্রতি খরচ বাদ দিয়ে প্রায় ১০-১২ হাজার টাকা আয় করতে পেরেছি। প্রতি বিঘার ধান প্রায় ২৮-৩০ হাজার টাকায় বিক্রি করেছি।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের সহকারী উপ-পরিচালক কৃষিবিদ মো. ফরিদুর রহমান বলেন, চলতি বছর জেলায় ১ লাখ ৮৭ হাজার ১৯৫ হেক্টর জমিতে বোরো ধানের চাষ করা হয়েছে। বোরো ধানে ভাল ফলন হয়েছে। এতে ৭ লাখ ৫০ হাজার ৫৫ মেট্রিক টন চালের উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হলেও তা থেকে বেশি উৎপাদন হবে। এছাড়াও বাজারদর ভাল থাকায় কৃষকরা খুশি। আবহাওয়া ভাল থাকায় কৃষকরা বিঘাপ্রতি ২৩-২৪ ফলন পেয়েছেন।

এই সম্পর্কিত আরও খবর

সর্বশেষ আপডেট