Wednesday, May 22, 2024

বাতাসে সুবাস ছড়াচ্ছে কাঁঠাল

প্রত্যেকটি বাড়িতে, রাস্তার ধারে, পুকুর পাড়ে থাকা গাছে ধরেছে প্রচুর কাঁঠাল। কিছু দিনের মধ্যে মন কাড়ানো লোভনীয় কাঁঠাল ফলের ঘ্রাণে মুখরিত হয়ে উঠবে হাট বাজার। তবে কিছু হাটে বর্তমানে অল্প সংখ্যক কাঁঠাল ফল উঠতে শুরু করেছে। কিন্তু ভরা মৌসুমের তুলনায় এখন দাম অনেক বেশি বলে জানান ক্রেতারা। শিবচরে গাছে গাছে শোভা পাচ্ছে রসালো ফল কাঁঠাল। বাতাসে কাঁঠালের মৌ মৌ ঘ্রাণ। গ্রীষ্ম মৌসুমের অন্যতম রসালো ও জাতীয় ফল হচ্ছে কাঁঠাল।

শিবচর উপজেলার কাঁঠালবাড়ি, কাদিরপুর, কুতুবপুর, দ্বিতীয়খন্ড, উমেদপুরসহ বেশ কয়েকটি এলাকায় দেখা যায় গাছে গাছে শোভা পাচ্ছে কাঁঠাল। গ্রামগুলোর মধ্যে খালি জায়গা, পুকুর পাড়, রাস্তায় ধারে ও বাড়ির আঙ্গিনায় রয়েছে অসংখ্য কাঁঠাল গাছ। প্রতিটি গাছের গোঁড়া থেকে আগা পযর্ন্ত শোভা পাচ্ছে পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ জাতীয় ফল কাঁঠাল। এক একটি গাছে ২০-৩০টির মতো কাঁঠাল ধরেছে।

কাদিরপুর এলাকার মো: হাবিব মাদবর বলেন, ‘আমার আটটি কাঁঠাল গাছ রয়েছে। প্রচুর কাঁঠাল ধরে গাছগুলোতে। আমরা কিছু কাঁঠাল বিক্রি করি, কিছু খাই ও কিছু মানুষকে বিলিয়ে দেই।’

বাহাদুরপুর থেকে নিজের গাছের তিনটি কাঁঠাল সাইকেলে ঝুলিয়ে নিয়ে এসেছেন জসিম মিয়া। রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে আছেন ক্রেতার অপেক্ষায়। তিনি বলেন, ‘প্রত্যেক বাজারবারে কাঁঠাল নিয়ে আসি। আজ তিনটা কাঁঠাল এনেছি। দাম চাইছি আট শ’ টাকা। ছয় থেকে সাত শ’ টাকা পেলে বিক্রি করে দেব।’

কুতুবপুর এলাকার বাসিন্দা রুহুল আমিন হক বলেন, আমাদের বাড়ির চারপাশে পাঁচটি কাঁঠাল গাছ আছে। প্রতি বছর আমরা পরিবারের সবাই খেয়ে বাজারে বিক্রি করে থাকি। প্রতি বছর কাঁঠাল ব্যবসায়ীরা বাড়িতে এসে কিনে নিয়ে যান।

এ বিষয়ে বাখরের কান্দি আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ সাখাওয়াত হোসেন বলেন, কাঁঠাল আমার একটি প্রিয় ফল। এটি অত্যধিক পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ ফল। কাঁঠালের কোনো অংশই পরিত্যক্ত থাকে না। কাঁঠাল যেমন জনপ্রিয়, কাঁঠালের বিচি ও খুব জনপ্রিয় খাবার। সবজির সাথে এর বিচি মিশিয়ে ছোট মাছ দিয়ে রান্না করা তরকারি, শুটকি মাছের সাথে কাঁঠালের বিচি আর ডাঁটার তরকারি, কাঁঠালের বিচি ভর্তা এ রকম অসাধারণ সব স্বাদের খাবার তৈরিতে কাঁঠাল বিচি ব্যবহার করা হয়।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মো: রফিকুল ইসলাম বলেন, এ উপজেলায় তেমন একটা কাঁঠালের বাগান নেই। গত বছরের তুলনায় এ বছর উপজেলায় কাঁঠাল ভালো হয়েছে। দিন দিন উপজেলার মানুষের মাঝে এ ফলের চারা রোপনের আগ্রহ বাড়ছে। ঠাল কাঁচা ও পাকা দুই অবস্থাতেই সমান জনপ্রিয়। এই কাঁঠালের পুষ্টিগুণ অনেক। ফলটি ক্যালরি, ‘ভিটামিন এ’ ও ‘ভিটামিন সি’ এর চাহিদা পূরণ করে।

এই সম্পর্কিত আরও খবর

সর্বশেষ আপডেট