Wednesday, May 22, 2024

বড় পরিসরে কিছু উপহার দেওয়ার চেষ্টা করছি : অপূর্ব

সম্প্রতি প্রকাশ পাওয়া জিয়াউল ফারুক অপূর্ব অভিনীত ‘ডার্ক জাস্টিস’ ও ‘ ইউএনও স্যার’ কাজ দুটিতে দর্শক নতুনরূপে আবিষ্কার করেছেন এই ভার্সেটাইল অভিনেতাকে। যে কোনো চরিত্রেই তাঁর  যে অনবদ্য– তা আরও একবার প্রমাণ দিলেন।

দীপ্ত টিভির ওটিটি প্ল্যাটফর্মে সম্প্রতি প্রকাশ পেয়েছে ফিল্ম ‘ইউএনও স্যার’।যেখানে চেনাজানা চরিত্রের বাইরে অপূর্ব অভিনয় করেছেন একটি উপজেলার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার চরিত্রে। ব্যক্তিগত ও পেশাগত দায়বদ্ধতার বেড়াজালে দেশের প্রতি ভালোবাসার চ্যালেঞ্জ নিয়ে একজন সরকারি কর্মকর্তা কী করতে পারেন, তা-ই দেখানো হয়েছে ফিল্মটিতে। এতে অপূর্বর সঙ্গে অভিনয় করেছেন তানজিম সাইয়ারা তটিনী।

অপূর্ব বলেন, “প্রত্যেক শিল্পীর সামাজিক কিছু দায়বদ্ধতা থাকে। তাকে নানা ধরনের চরিত্র ও গল্পে কাজ করতে হয়। সেই জায়গা থেকে এতে কাজটি করেছি। ‘ইউএনও স্যার’ ফিল্মের গল্পই আলাদা। এতে অনেক বক্তব্য রয়েছে। ‘শুধু প্রেমে নয়, কিছু মানুষ বাঁচে দেশপ্রেমে!’ স্লোগানটিতেই বোঝা যায় কী থাকছে ফিল্মে। প্রথমবার কোনো প্রশাসনিক ক্যাডার সার্ভিসের কর্মকর্তা চরিত্রে দর্শক আমাকে দেখেছেন। একটি ভিন্ন আঙ্গিকের গল্প সহজভাবে উপস্থাপনের চেষ্টা করেছেন নির্মাতা সৈয়দ শাকিল। কাজটি প্রকাশ হয়েছে বেশিদিন হয়নি, এরই মধ্যে অনেক দর্শক এটি দেখেছেন। বেশ দর্শক প্রশংসা পাচ্ছি, যা আমাকে অন্য রকম ভালো লাগায় ভরিয়ে দিয়েছে।”

সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া অপূর্বর আরেকটি কাজ হলো ‘ডার্ক জাস্টিস’। তপু খান নির্মাণ করেছেন সাইকোলজিক্যাল থ্রিলারটি। প্রভাবশালী এক ব্যক্তি খুনের মামলায় জড়িয়ে যায়। কিন্তু কেউ ভয়ে তার বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দেয় না। তাহলে কি অভিযোগকারীরা ন্যায়বিচার পাবে না? খুন, ধর্ষণ ও ন্যায়বিচারের গল্প নিয়ে এগিয়ে চলে ‘ডার্ক জাস্টিস’।

পাশাপাশি মামলার রায় হয়ে ওঠে গল্পের মুখ্য। অন্ধকার জগতের এ গল্পে বিচারকের ভূমিকায় দেখা যাবে অপূর্বকে। এতে তাঁর মুখের সংলাপ ‘আমি মামলা করি না, রায় দিই’ এখন অনেক দর্শকের মুখে মুখে। থ্রিলারটিতে অপূর্বর বিপরীতে রয়েছেন সায়লা সাবি। আকবর হায়দার মুন্নার গল্পে এটি সম্প্রতি প্রকাশ হয়েছে ক্লাব ইলেভেন এন্টারটেইনমেন্টের ইউটিউব চ্যানেলে।

১ ঘণ্টা ৩৫ মিনিটের নাটকটি নিয়ে অপূর্ব বলেন, “আমরা যে রকম থ্রিলার গল্প দেখি, ‘ডার্ক জাস্টিস’ তার বাইরের ব্যতিক্রমী একটি গল্প। চরিত্রটিও আমার জন্য নতুন। দর্শক টিজার, ট্রেইলারের প্রশংসা করেছেন। এখন পুরো কনটেন্ট মুক্তি পেয়েছে। দর্শকও এ কাজের তারিফ করছেন।”

ওয়েব মাধ্যমের কাজে ব্যস্ততা বাড়ায় টিভি নাটকে আর আগের মতো সেভাবে পাওয়া যায় না অপূর্বকে। এক সময় ঈদ নাটক মানেই ছিল অপূর্বর অভিনয়। আসছে ঈদের নাটক নিয়ে এখন ব্যস্ততা নেই তাঁর।

অভিনেতা বললেন, ‘টিভি নাটক দিয়েই তো দর্শক আমাকে চিনেছে। নাটক থেকে দূরে থাকা অসম্ভব। তবে এটি সত্য, আগের চেয়ে নাটক একটু কম করছি। চেষ্টা করছি একটু বড় পরিসরে ভালো কিছু উপহার দেওয়ার। অনেক দিন ধরে এক ধরনের কাজ হয়ে আসছে, চেষ্টা করছি আরেকটু ভালো কী করা যায়! নতুন কিছু করার জন্য সময় দরকার। একটু সময় নিয়ে ভালো গল্প এবং বড় আয়োজনে দর্শকদের নতুন কিছু উপহার দেওয়ার চেষ্টা করছি। এ কারণে দর্শক আমাকে নাটকে কম দেখছেন। অযথা কাজের সংখ্যা বাড়িয়ে লাভ কী? সংখ্যা নয়, কয়টি ভালো কাজ করছি আমার কাছে সেটিই মুখ্য।’

এই সম্পর্কিত আরও খবর

সর্বশেষ আপডেট