Thursday, June 1, 2023

দেশজুড়ে দাবদাহ, চুয়াডাঙ্গায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪১.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস

শুক্রবার চুয়াডাঙ্গায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৪১ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এতে অনেকটাই স্থবির হয়ে পড়েছে জনজীবন। সবচেয়ে বেশি বিপাকে পড়েছেন শ্রমজীবী মানুষেরা। বর্ষবরণের দিনে তীব্র গরমে পুড়ছে সারা দেশ। টানা ১২ দিন ধরে চুয়াডাঙ্গায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা।

আগামী ৩-৪ দিনে তাপমাত্রা আরও বাড়তে পার বলে জানিয়েছে আবহাওয়াবিদরা। এ মৌসুমে শুক্রবার ঢাকায় ৪০ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। ভ্যাপসা গরমে বিপর্যস্ত জনজীবন। বৈশাখ এলেও ঝড়-বৃষ্টি নিয়ে এখনও সুনির্দিষ্ট কোনো তথ্য নেই আবহাওয়া অফিসের কাছে।

সপ্তাহখানেক ধরে রাজধানীতে মাঝারি তাপপ্রবাহ, যার প্রভাবে অতিষ্ঠ জনজীবন। তাই একটু প্রশান্তি পেতে ধানমণ্ডি লেকে এসেছেন বিলাস চন্দ্র বর্মণের মতো অনেকেই। এসময় ব্যাপক উৎসাহের সাথে লেকে গোসলও করতে দেখা যায় শিশু-বৃদ্ধদের। তীব্র রোদে রিকশা চালাতে গিয়ে হাঁপিয়ে উঠছেন চালকরা। যেখানেই ছায়া মিলছে, কাজের ফাঁকে নিচ্ছেন একটু বিশ্রাম।

রোদে-তাপে যেন পুড়ছে চুয়াডাঙ্গা। গরমের দাপটে ঘরেবাইরে কোথাও একটু স্বস্তিতে বসার উপায় নেই। টানা ১২ দিন দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা এই জেলায়। শুক্রবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৪১ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এ অবস্থায় সবচেয়ে বেশি বিপাকে পড়েছেন কৃষকসহ সব শ্রমজীবী মানুষ। অনেকেই তীব্র গরমে ভুগছেন পানিশূন্যতায়। টানা এক সপ্তাহ ধরে তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে রাজশাহীর ওপর দিয়ে। যা আরও কয়েকদিন অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। শুক্রবার রাজশাহীতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৩৯ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

মেহেরপুরেও বয়ে যাচ্ছে তাপপ্রবাহ। বৃহ্স্পতিবার ছিলো ৪১ ডিগ্রি। একই পরিস্থিতি যশোরেও। তীব্র গরমে অনেকটাই স্থবির হয়ে পড়েছে জনজীবন।

আবহাওয়াবিদ হাফিজুর রহমান বলেন, এ মৌসুমে শুক্রবার ঢাকায় ৪০ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। আগামী ৩-৪ দিন তাপমাত্রা আরও বাড়তে পারে।

আবহাওয়া অফিস বলছে, আগামী সপ্তাহের শেষের দিকে বৃষ্টিপাতের সম্ভবনা রয়েছে। তখন গরম কিছুটা কমে আসবে।

এই সম্পর্কিত আরও খবর

সর্বশেষ আপডেট