Wednesday, April 17, 2024

তরমুজ চাষে লাভবান কৃষক ফারুক!

আবহাওয়া ভাল থাকায় গত বছরের তুলনায় এবছর বেশি ফলন পেয়েছেন। এছাড়াও বর্তমানে দেশে তীব্র গরম ও দাবদাহ চলছে। তাতে পানি জাতিয় এই ফলটির চাহিদা আগের তুলনায় অনেকটাই বেড়েছে। ফলে বাজারে দামও বেশি। তাই কাঙ্ক্ষিত ফলন ও বাজারদর পেয়ে খুশি তিনি। হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে তরমুজ চাষে লাভবান কৃষক ফারুক মোল্লা।

কৃষক ফরুক মোল্লা চুনারুঘাট উপজেলার আহমদাবাদ ইউনিয়নের ঘনশ্যামপুর গ্রামের বাসিন্দা। এই উপজেলায় আগের তুলনায় তরমুজের চাষ তিনগুণ বেড়েছে। কম খরচে বেশি লাভবান হওয়া যায় বলে কৃষকরা এর চাষে ঝুঁকছেন। তরমুজ চাষির পাশাপাশি শ্রমিকরা জমিতে কাজ করেও ভাল আয় করতে পারছেন। আর বিভিন্ন জায়গার পাইকাররা জমি থেকেই এইসব তরমুজ কিনে নিয়ে যাচ্ছেন। বর্তমানে কৃষকরা শ্রমিকের মাধ্যমে জমি থেকে তরমুজ সংগ্রহ করছেন।

চলতি বছর চুনারুঘাট উপজেলায় ১৬৫ বিঘা জমিতে তরমুজের চাষ হয়েছে। গত বছরের তুলনায় এবছর ১২৮ বিঘা বেশি জমিতে চাষ হয়েছে। আবহাওয়া ভাল থাকলে এই উপজেলা থেকে ১ হাজার ৫০ টন তরমুজ উৎপাদন হবে।

কৃষক ফারুক মোল্লা বলেন, এবছর আমি ১০ বিঘা জমিতে তরমুজের আবাদ করেছি। চাষে আমার ৩ লাখ টাকা খরচ হয়েছে। আর বর্তমান বাজারে তরমুজের বেশ চাহিদা রয়েছে। আশা করছি ৭ লাখ টাকার তরমুজ বিক্রি করতে পারবো। আবহাওয়া ভাল থাকায় জমিতে বেশ ভাল ফলন হয়েছে।

চুনারুঘাট উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মাহিদুল ইসলাম বলেন, কৃষিতে আধুনিক পদ্ধতির ব্যবহার হওয়ায় আগের তুলনায় ফলন বেশি পাওয়া যায়। এছাড়াও উৎপাদিত ফসল ভাল বাজারদরে বিক্রি করতে পেরে কৃষকরা লাভবান হতে পারেন। সেই ধারাবাহিকতায় এবছর ১২৮ বিঘা বেশি জমিতে তরমুজের চাষ হয়েছে। আমরা কৃষকদের সব ধারনের সহযোগিতা করছি। চাষের পরিমানও দিন দিন বাড়ছে।

এই সম্পর্কিত আরও খবর

সর্বশেষ আপডেট