- Advertisement -

টিকটকের মতো ফেসবুকেও শর্ট ভিডিও ফিচার

Must Try

শর্ট ভিডিও’র দিকে ঝুঁকছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো। ফেসবুকও এই পথে হাঁটলো। ১৫০টিরও বেশি দেশে ফেসবুকে শর্ট ভিডিও ফিচার ‘রিলস’ চালু করছে মেটা। মঙ্গলবার দ্রুততম সময়ে জনপ্রিয় হয়ে ওঠা এই ফিচারটি যোগ করার কথা জানিয়েছেন মেটার প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ।

- Advertisement -

মেটার প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ মঙ্গলবার এক ফেসবুক পোস্টে বলেন, রিলস আমাদের সবচেয়ে দ্রুত বেড়ে ওঠা কনটেন্ট ফরম্যাট। আজকে আমরা সারাবিশ্বে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের কাছে তা তুলে ধরছি।

- Advertisement -

ফেসবুকে এই ফিচারে থাকছে ক্রিয়েটিভ টুলস যা দিয়ে রিমিক্স ভিডিও করা যাবে এবং পূর্বেকার স্টোরি থেকেও রিল ভিডিও বানানো যাবে। জাকারবার্গ বলেন, ব্যবহারকারীরা যেন লাইভ অথবা দীর্ঘ বা পূর্বে ধারণকৃত ভিডিও আপলোড করতে পারেন সেজন্য আমরা ‘ভিডিও ক্লিপিং টুলস’ বানাচ্ছি।

- Advertisement -

‘বাইটড্যান্স’ নামের চাইনিজ কোম্পানির টিকটককে পাল্লা দিতে ২০২০ সালে ইনস্টাগ্রামে এবং ২০২১ সালে ফেসবুকে সর্বপ্রথম যুক্তরাষ্ট্রে রিলস ভিডিও চালু করে মেটা। সেবারই প্রথম ফেসবুকের গ্রাফে অবনমন চোখে পড়ায় নড়েচড়ে বসে কোম্পানিটি।

কীভাবে উপার্জন করবেন?

বিভিন্ন ফেসবুক রিলস-এর যোগ্য পেজে নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা দিয়ে থাকে মেটা। সেক্ষেত্রে মেটার বিভিন্ন নিয়ম রয়েছে। সেগুলি মেনে চললেই অর্থ উপায় সম্ভব।

ইনস্টাগ্রাম রিলস এর মতোই ফেসবুক রিলস থেকে উপার্জন করা সম্ভব। সেক্ষেত্রে ক্রিয়েটারকে ব্র্য়ান্ড প্রোমোশন করতে হবে। বিভিন্ন সংস্থা রয়েছে যারা ক্রিয়েটরদের মাধ্যমে বিভিন্ন পণ্য বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকেন। সেক্ষেত্রে ফেসবুক রিলস এ যত বেশি সংখ্যক ফলোয়ার্স রয়েছে সেই ক্রিয়েটারের তত বেশি উপার্জনের সম্ভাবনা রয়েছে।

এছাড়াও বিভিন্ন ইনফ্লুয়েন্সার মার্কেটিং সংস্থা রয়েছে। এই সংস্থাগুলি ফেসবুক রিলসএর বিভিন্ন ক্রিয়েটরদের ম্যানেজ করেন। সেই সব এজেন্সির মাধ্যমেও বিভিন্ন সংস্থার সঙ্গে বিজ্ঞাপনের জন্য চুক্তি করা যেতে পারে।

- Advertisement -
- Advertisement -
- Advertisement -

Latest Post

- Advertisement -

You Like This

- Advertisement -