Tuesday, May 21, 2024

ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি’: বড় বাঁচা বেঁচে গেল বাংলাদেশ

বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত নিম্নচাপটি গভীর নিম্নচাপে রূপ নিয়েছে, যা আরও ঘনীভূত হয়ে ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হলে এর নাম হবে ‘অশনি’। এটি শ্রীলঙ্কার দেওয়া নাম। ‘অশনি’ নিয়ে অনেক উদ্বেগ, উৎকন্ঠায় ছিল বাংলাদেশ।

তবে সোমবার (২১ মার্চ) বিকেলে আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি’র কারণে বাংলাদেশ উপকূলে তেমন কোনো প্রভাব পড়বে না।তবুও গভীর নিম্নচাপের প্রভাবে সাগর উত্তাল থাকায় চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরে এক নম্বর সতর্কসংকেত বহাল থাকবে।

ভারতীয় আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি’ আন্দামান দ্বীপপুঞ্জের কাছ দিয়ে এগিয়ে বুধবার ভোরে মিয়ানমার উপকূল আঘাত হানতে পারে। বাংলাদেশে আজকের আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ফরিদপুর, রাঙ্গামাটি, সিলেট, রাজশাহী, নীলফামারী, চুয়াডাঙ্গা জেলার ওপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। মঙ্গলবারও তা অব্যাহত থাকতে পারে। আজ দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে রাজশাহীতে ৩৮.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ সময় ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৫.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এদিকে, সোমবার সকাল ৬টায় গভীর নিম্নচাপটি উত্তর আন্দামান সাগর ও তৎসংলগ্ন দক্ষিণপূর্ব বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থান করছিল। তখন এর অবস্থান ছিল চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে এক হাজার ১৫০ কিলোমিটার দক্ষিণে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে এক হাজার ১০৬০ কিলোমিটার দক্ষিণে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে এক হাজার ২৪০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপূর্বে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে এক হাজার ১৬৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপূর্বে।গভীর নিম্নচাপ কেন্দ্রের ৪৮ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ৫০ কিলোমিটার, যা ঝড়ো হাওয়া আকারে ৬০ কিলোমিটার পযন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছিল।এ জন্য উত্তর বঙ্গোপসাগরে থাকা মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে এবং গভীর সাগরে বিচরণ না করতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল।

এই সম্পর্কিত আরও খবর

সর্বশেষ আপডেট