Friday, April 19, 2024

কৃপণতার নজির গড়লেন সারা, মাত্র ৪০০ টাকার জন্য প্রযোজকের সঙ্গে ঝগড়া!

‘বিন্দু বিন্দুতে সিন্ধু হয়…’, একথা মনে-প্রাণে বিশ্বাস করেন সারা আলি খান। তাই উপার্জনের একটা পয়সাও গুনে গুনে খরচ করেন অভিনেত্রী। কোনও কিছুর জন্যই অতিরিক্ত টাকা-পয়সা ওড়ানো তাঁর না-পসন্দ। তাই বলে ৪০০ টাকার জন্য প্রযোজকের সঙ্গে ঝগড়া? এমনকী, নিজের মা অমৃতা সিংকেও ছেড়ে কথা বলেননি সারা আলি খান!

নবাবকন্যা হলেও সারার জীবনযাপন কিন্তু বেশ সাদামাটা। রোজকার জীবনে বেশি দামি পোশাক হোক কিংবা গাড়ি, কোনওটাতেই অভ্যস্ত নন অভিনেত্রী। এবার IIFA অ্যাওয়ার্ডস-এর জন্য দুবাইতে গিয়েও কৃপণতার নজির গড়লেন সারা আলি খান। কীরকম?

IIFA অ্যাওয়ার্ডস-এর জন্য আবু ধাবিতে যাওয়ার আগে প্রযোজক তাঁকে বারবার বলেছিলেন, ওখানে গিয়ে ফোনের রোমিং কানেকশন সক্রিয় করতে। কিন্তু দুবাইতে গিয়ে মোটেই তা করেননি অভিনেত্রী। কারণ ১ দিনের জন্য রোমিং কানেকশনের খরচ করতে রাজি নন তিনি।

এরপর কী ঘটে? নিজেই সেকথা ফাঁস করলেন সারা আলি খান। তাঁর মন্তব্য, “IIFA-তে আমি আর ভিকি কৌশল যাই ‘জরা হাটকে জরা বাঁচকে’ ছবির জন্য। প্রযোজক দিনুকেও (দীনেশ বিজন) যোগাযোগ করার দায়িত্ব ছিল আমার। সকালে আমার প্রযোজক আমাকে ভয়েস মেসেজ পাঠিয়ে বলেন, ওখানে মাত্র ৪০০ টাকায় রোমিং কানেকশন পাওয়া যায়। দয়া করে নিয়ে নাও।” সেকথা কানে তোলা তো দূরঅস্ত! এযাত্রায় হেয়ার ড্রেসারের হটস্পট নিয়ে কাজ চালান নবাবকন্যা। এখানেই শেষ নয়!

সারা আলি খান নাকি নিজের মাকেও ছেড়ে কথা বলেন না টাকা খরচ করলে। সেকথা ভিকি কৌশলই ফাঁস করেন। জানান, “সারার মা অমৃতা সিং একটা তোয়ালে ১৬০০ টাকা দিয়ে কিনছিলেন বলে কী ঝগড়াটাই না করল ও!” সেকথা যদিও অস্বীকার করেননি অভিনেত্রী। এরপর নিজেই নিজেকে রসিকতা করে ‘কিপটে’ বলে আখ্যা দেন।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন।

এই সম্পর্কিত আরও খবর

সর্বশেষ আপডেট