Saturday, February 24, 2024

এবার এলিট শ্রেণির দর্শকরা আমার টার্গেট : হিরো আলম

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আলোচনার শেষ নেই দেশের চলচ্চিত্র জগতে আলোচিত-সমালোচিত নাম হিরো আলমকে নিয়ে। তিনি যা করেন সেটি নিয়েই শুরু হয় সমালোচনা। এবার হিরো আলমের চতুর্থ সিনেমা ‘টোকাই’ মুক্তি। সিনেমাটির নাম নিয়েও কম বিতর্ক হয়নি। এ বিষয়গুলো নিয়ে গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন হিরো আলম।

হিরো আলম বলেন, ‘টোকাই’ বানাতে গিয়ে পদে পদে হয়রানির মুখে পড়তে হয়েছে। অভিনয়শিল্পীরা অনেকে রাজি হন না। অনেক অনুরোধ করে রাজি করালেও অন্যরা তাদের আমার সিনেমায় কাজ করা নিয়ে বাজে কথা বলেছে। অনেকেই ভয় দেখায় আমার সিনেমা করলে তাদের কাজ কমে যাবে। আমি সিনেমা বানাতে পারব না। সিনেমা মুক্তি দিতে পারব না। এটা মনে করে আমার সঙ্গে কাজ করতে চায় না।

এক প্রশ্নে হিরো আলম বলেন, ভক্তদের মাঝে জনপ্রিয়তা আমার আগের চেয়ে বেড়েছে। আমার ছবি নিয়ে তাদের অনেক উচ্ছ্বাস। ভালো রেসপন্স পাচ্ছি। সব সময় আমাকে যারা বাধা দেন, তাদের আমি দেখিয়ে দেব।আমার সিনেমা দেখতে মানুষ এবার হলে আসবেন। আমি যে শুধু নামেই হিরো না; চলচ্চিত্রজগতেও যে আমি হিরো, সেই সফলতা নিয়ে আসব। আমার প্রথম বাধা ছিল হল। সেখানে এই দুঃসময়ে ৩০টি সিনেমা হল পেয়েছি। এসবই আমার জন্য চ্যালেঞ্জ ছিল।

আপনার সিনেমার দর্শক কারা? এমন প্রশ্নের জবাবে হিরো আলম বলেন, ‘আমি খেটে খাওয়া মানুষের দলে। আমি যা করি, সেগুলো বেশিরভাগ নিম্নবিত্ত, টোকাই শ্রেণির মানুষ দেখেন। অন্যরাও দেখেন। দেখে হিরো আলমকে টেনে নিচে নামাতে চান। যারা আমাকে পছন্দ করেন, তাদের জন্যই এ কাজ। তারা বুঝবেন একটা টোকাই কত কষ্ট করে তার পরিবার চালায়। এবার এলিট শ্রেণির দর্শকও আমার টার্গেটে আছে।

‘টোকাই’ সিনেমায় হিরো আলমের জুটি হয়েছেন রিয়া চৌধুরী। তার এটি চতুর্থ সিনেমা। এই নায়িকাও হিরো আলমের সঙ্গে প্রথমে অভিনয় করতে চাননি। পরে রাজি হয়েছেন। মজা করে তিনি হিরো আলমের নাম রেখেছেন ‘নেভার গিভআপ ম্যান’। রিয়ার কাছে মনে হয়েছে, কোনো কাজে জড়িয়ে গেলে তিনি হাল ছাড়েন না।

সবশেষে দর্শকের উদ্দেশে হিরো আলম বলেন, ‘আপনারা সিনেমা দেখে ভুল থাকলে আমাকে বলেন। আমি সামনে ভালো করব।’

এই সম্পর্কিত আরও খবর

সর্বশেষ আপডেট