Friday, April 19, 2024

এক কেজি আলুর দাম প্রায় ৬০ হাজার টাকা!

শুধু দামে নয়, স্বাদেও অন্যান্য প্রজাতির আলুর থেকে একেবারে আলাদা ‘লা বোনোতে’। এর স্বাদ সামান্য টক। খাওয়ার পর একটু নোনতা লাগবে। চিনাবাদামের মতো স্বাদ এই আলুর।

সব্জি হোক বা কোনও তরকারি, হেঁশেলে আলু ছাড়া এই সব পদ কল্পনা করা যায় না। সারা বিশ্বে আলুর চাহিদাও প্রচুর। আলুর দাম যদি এক লাফে ৩০ টাকা হয়ে যায়, তা হলে ‘গেল গেল’ রব উঠে যায়। আবার নানা রকম ব্যঞ্জনেও আলুর প্রয়োজন পড়ে। তাই বাধ্য হয়েই অনেককে সেই দামেই কিনতে হয়। তা ছাড়া সব্জির মধ্যে সবচেয়ে সস্তায় আলু পাওয়া যায়, তাই এর চাহিদাও বেশি।

কিন্তু এমন এক ধরনের আলু আছে যার দাম শুনলে ভিরমি খেতে হতে পারে। তখন আর আলুকে সস্তার সব্জি বলে মনে না-ও হতে পারে! সেই আলুর দাম যদি একশো বা দু’শো নয়, কয়েক হাজার টাকা হয়, তা হলে? আলু, তা-ও আবার হাজার হাজার টাকা দাম! এ তো ‘কল্পনা’ও করা সম্ভব নয়। কিন্তু স্বপ্ন নয়, বাস্তবে এমনই এক ধরনের আলু আছে, যার এক কেজির দাম ৪০-৫০ হাজার টাকা। বাংলাদেশি টাকায় যার মূল্য দাঁড়ায় ৫১ হাজার থেকে ৬৪ হাজার টাকা পর্যন্ত।

এই আলুর নাম ‘লা বোনোতে’। বছরে মাত্র ১০ দিন পাওয়া যায় বিরল প্রজাতির এই আলু। ফ্রান্সের ইলে দ্য নয়েরমোঁতিয়ের দ্বীপে এই প্রজাতির আলুর চাষ হয়। এত বিরল যে, মাত্র ৫০ বর্গমিটার এলাকায় চাষ হয় এই মহামূল্যবান আলুর। বালু জমিতে চাষ হয় ‘লা বোনোতে’। সার হিসাবে ব্যবহার করা হয় সমুদ্রের আগাছা এবং প্রবাল। আর সে কারণেই এই আলুর দাম এত বেশি।

শুধু দামে নয়, স্বাদেও অন্যান্য প্রজাতির আলু থেকে একেবারে আলাদা ‘লা বোনোতে’। এর স্বাদ সামান্য টক। খাওয়ার পর একটু নোনতা লাগবে। এ ছাড়াও চিনাবাদামের মতো স্বাদ এই আলুর। অত্যন্ত যত্নের সঙ্গে এই আলু চাষ করা হয়। আলু তোলাও হয় অত্যন্ত যত্ন সহকারে। হাত দিয়ে এক এক করে তোলা হয় এই আলু। প্রতি বছরে এক সপ্তাহ এই আলু তোলার কাজ চলে। আলুর খোসা না ছাড়াতে পরামর্শ দেন কৃষকরা। কারণ খোসা ছাড়ালে এই আলুর স্বাদ এবং গন্ধ সব নষ্ট হয়ে যায়।

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা অনলাইন।

এই সম্পর্কিত আরও খবর

সর্বশেষ আপডেট