Wednesday, April 17, 2024

আমার জামাই তো আমার সঙ্গে দশ দিন ধরে থাকে না, ওর সঙ্গে থাকে : পরীমণি

চিত্রনায়ক শরিফুল রাজের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে ছবি ও ভিডিও ফাঁসের ঘটনায় নাম উল্লেখ না করে চিত্রনায়িকা পরীমণিকে দোষারোপ করেছেন অভিনেত্রী সুনেরাহ বিনতে কামাল। বিষয়টি নিয়ে জানতে চাইলে মঙ্গলবার এক সংবাদমাধ্যমকে অডিও বার্তায় পরীমণি দাবি করেন, রাজ ১০ দিন যাবত তার সঙ্গে নেই, সুনেরাহর সঙ্গেই রয়েছেন। আর এই সব ভিডিও ছবি প্রকাশের সঙ্গে সুনেরাহ-ই জড়িত।

পরীমনি বলেন, ‘এই মেয়ে কী চায়, বেয়াদব মহিলা, কত্তবড় সাহস। রাজই তো আমার কাছে নাই, রাজের ফোন কই থেকে আসবে আমার কাছে। আর এগুলো আমি কেন করতে যাবো লেম জিনিসপত্র।’

‘আপনাদের কী মাথা খারাপ। ওর নাকি এতো ভালো ফ্রেন্ড তাহলে বিয়ের পর কেন যোগাযোগ রাখে নাই। হঠাৎ করে আমার জামাইকে কেড়ে নিছে কেন? আমার জামাই তো আমার সঙ্গে দশ দিন ধরে থাকে না ওর সঙ্গে থাকে। কেন থাকে?’

তিনি বলেন, ‘এখন তো আমার তাই মনে হচ্ছে সমস্ত নাটের গুরু হচ্ছে এই মেয়ে। না হলে হুট করে তোমার মনে হইল ভোর রাতে তুমি স্ট্যাটাস দিয়া দিলা রাজের আইডি থেকে, ১০ মিনিট না ১৫ মিনিটের মাথায় ভিডিও ছবি সব ডিলিট হয়ে গেল? এগুলো কোনো প্ল্যান না মনে করছেন? এই মেয়ে জড়িত পুরোপুরি ভাবে। ইচ্ছা করে একটি চক্র কাজ করতেছে আমার সংসার ভাঙানোর জন্য। আমি কী রাজের আইডি চালাই।’

পরীমণি বলেন, ‘ও যেন প্রমাণ না নিয়ে আমার সঙ্গে কথা বলে না। একদম কেউ যদি আমার দিকে আঙ্গুল তোলে খালি খালি, আমি কিন্তু সবার নামে মামলা দিব। আর এইসব ফ্রেন্ড সার্কেলের পাল্লায় পড়ে আমার সংসারে কোনো এদিক ওদিক হইছে, তাহলে সবাই দায়ী থাকবে এজন্য। আর সুনেরাহ মেয়েটা আমার নামে কী বলছে, ওর কোনো রাইট-ই নাই একদম উইদাউট প্রমাণ আমার নামে এই কথাগুলো বলে যায়। রাজ তো কয়েকদিন ধরে ওর কাছে। রাজের ফোন ওর কাছে। রাজ কি আমার কাছে থাকে যে আমি ফোন থেকে দিয়ে দিব ছবিগুলো।

‘এই মেয়ে কী চায়, এত্তো বড় সাহস। ওর নাকি এতো ভালো ফ্রেন্ড তাহলে বিয়ে পর কেন যোগাযোগ রাখে নাই। হঠাৎ করে এখন আমার জামাইকে কেড়ে নিছে কেন, আমার জামাই তো আমার সঙ্গে দশদিন ধরে থাকে না, ওর সঙ্গে থাকে। কেন থাকে? রাজের ফোন থাকে ওর কাছে, কেন থাকে? আমাদের ঘড় ভেঙে কি ও ঘর করতে চায়, না কী চায়? আমি তো বুঝলাম না।’

তিনি আরও বলেন, ‘ও বলে আমি ওর উপর খ্যাপা, কীভাবে ক্ষেপলাম? আমি কী ওকে ফোন দিয়ে গালি দিছি না ওর বাসায় গিয়ে গালি দিয়েছি। ওর সঙ্গে তো আমার কোনো ধরণের কোনো কথায় হয় নাই, যোগাযোগ হয় নাই। আমাকে নিয়ে কেন কথা বলল? জিজ্ঞেস করেন ওকে। ও কি লাইম লাইটে আসতে চায়, আলোচনায় আসতে চায়? ও কী চায়? নাহ ও চায় রাজের সংসারটা ভেঙে যাক।’

‘প্রবলেম হচ্ছে ও আমাকে নিয়ে কথা বলল কেন? ওদের ভিডিও ওদের ছবি দিয়ে আমি কী করব? এগুলো নিয়ে আমার কোনো মন্তব্য নাই, এগুলো নিয়ে আমি কী কথা বলল। এগুলো সিলি ম্যাটার নিয়ে আমি কী বলল। মন্তব্য হচ্ছে, সে আমাকে নিয়ে কেন কথা বলল? আমি নাকি ওর উপর খ্যাপা ছিলাম, ও কীভাবে বুঝলো আমি খ্যাপা ছিলাম? আমি কী ওরে ফোন দিয়া গালি দিছি? নাকি সামনাসামনি গিয়ে কিছু বলছি? নাকি অন্য কারো কাছে গিয়ে বলছি, আমি কার কাছে কী বলছি? ওর কেন মনে হলো আমি খ্যাপা। কারণ কী জানেন, ও ইন্টেনশনালি চায় এইরকম কিছু একটা ঘটুক। আমার তো তাই মনে হচ্ছে সমস্ত নাটের গুরু হচ্ছে এই মেয়ে। এই মেয়ে জড়িত পুরোপুরি ভাবে।’

সূত্র: চ্যানেল২৪।

এই সম্পর্কিত আরও খবর

সর্বশেষ আপডেট