স্কুল ফাঁকি দিয়ে ক্যাফেতে বসে পর্নোগ্রাফি? আটক ৬৫ কিশোর-কিশোরী

ভারতে স্কুল ফাঁকি দিয়ে ক্যাফেতে বসে পর্নোগ্রাফি দেখা ৬৫ কিশোর-কিশোরীকে আটক করেছে ভারতীয় পুলিশ।

হায়দরাবাদ শহরের বিভিন্ন ক্যাফেতে গতকাল মঙ্গলবার হানা দেয় দেশটির পুলিশ। এ সময় পর্নো দেখা অবস্থায় ৬৫ কিশোর-কিশোরী ধরা পড়ে সেখানে। বাবা-মায়েদের সঙ্গে ওই ৬৫ জনের একটি কাউন্সেলিং-এর ব্যবস্থা করা হয় আজ বুধবার।

পুলিশ জানিয়েছে, অনেক দিন ধরেই অভিযোগ জমা পড়ছিল। বাচ্চারা স্কুলে যেতে চাইছে না। তার চেয়ে বরং সাইবার ক্যাফেতে সময় কাটাতে পছন্দ করছে। অভিভাবকেরা কিছু বললেই হুমকি দেয়, সাইবার ক্যাফেতে না যেতে দিলে তারা পড়াশোনা ছেড়ে দেবে তারা।

বেশ কিছু দিন ধরেই ওই অভিভাকেরা পুলিশে অভিযোগ জানাচ্ছিলেন, কোনোভাবেই নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না সন্তানদের। আটকানো যাচ্ছে না ক্যাফেতে যাওয়াও। তাই পুলিশের শরণাপন্ন হন তারা। মঙ্গলবার সেই সব অভিযোগের ভিত্তিতেই প্রায় ৫০টি সাইবার ক্যাফেতে হানা দেয় পুলিশ। হাতেনাতে ধরাও পড়ে ৬৫ কিশোর-কিশোরী। এদের সকলেরই বয়স ১১ থেকে ১৬ বছরের মধ্যে।

১২টি সাইবার ক্যাফের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়। নিয়ম না মেনে ওই সব কিশোর-কিশোরীদের ক্যাফেতে ঢুকতে দেওয়া হয়। নিয়ম অনুযায়ী ক্যাফেতে ঢুকতে গেলে সচিত্র পরিচয়পত্র লাগে। এ ক্ষেত্রে তা নেওয়া হয়নি।

থাকা উচিত ক্যাফেতে যারা আসেন তাদের নাম ঠিকানা সম্বলিত একটি রেজিস্টার খাতাও। এ ক্ষেত্রে তা-ও ছিল না। ওই সব ক্যাফে মালিকদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন হয়দরাবাদ পুলিশের ডিসিপি (সাউথ জোন) ভি সত্যনারায়ণ।

পাশাপাশি ওই সব কিশোর-কিশোরীদের তাদের অভিভাকদের সঙ্গে একটি যৌথ কাউন্সিলিং-এর ব্যবস্থা করে পুলিশ। সেখানে সকলেই হাজির ছিলেন বলে সূত্রের খবর।