সৌদি আরবে আগুনে নিহত নাটোরের ৪ শ্রমিকের মধ্যে ৩ জনের লাশ গ্রামের বাড়িতে এসেছে, দাফন সম্পন্ন

শাকিল আহমেদ,নাটোর প্রতিতিধি: সৌদি আরবের সোফা কারখানায় অগ্নিকান্ডে নিহত নাটোরের নলডাঙ্গার ৪ শ্রমিকের মধ্যে খাজুরা শ্রীপুড়া গ্রামের সৈয়দ আলীর ছেলে সামিউল হক সাদ্দাম(২০), খাজুরা জর্ণাদ্দবাটি গ্রামের গফুর মোল্লার ছেলে জামাল হোসেন মোল্লা(৩৮), আজাহার আলীর ছেলে অহিদুর রহমান অসীম(৩০) এই ৩ জনের লাশ মঙ্গলবার বিকেলে সৌদির একটি বিমানে ঢাকা হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে আসে।

তবে সৌদি আরবের দুতাবাসে আউট পাশ না থাকায় খাজুরা ভাটোপাড়া গ্রামের সেকেন্দার আলীর ছেলে আমিনুর রহমানের লাশ আসেনি।পরে স্বজনরা বুধবার ভোরে লাশগুলো নিয়ে গ্রামের এসে পৌছালে এলাকায় এক হৃদয় বিদারক দৃশ্য সৃষ্টি হয়।নেমে আসে শোকের ছায়া।স্বজনদের কান্নার আহাজারিতে ভারি হয়ে ওঠে এলাকার পরিবেশ।

লাশ দেখতে শোকাহত বাড়িতে ছুটে আসে এলাকাবাসী।এসময় প্রতিবেশীরাও কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে।দুপুরের দিকে এলাকায় জানাজা শেষে কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন হয়।

উল্লেখ্য গত ১০ আগস্ট সৌদি আরবের হারাজ বিন কাশেম মানফুহা এলাকায় একটি সৌফা তৈরির কারখানায় আগুনে পুড়ে মাড়া যায় ওই ৪ শ্রমিক।