সৈয়দ হকের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনের কর্মসূচি স্থগিত

সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামসুল হকের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭০তম জন্মদিনে আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের কর্মসূচি স্থগিত করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে কর্মসূচি স্থগিত করা হয়েছে বলে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী মাহবুবুল হক শাকিল প্রথম আলোকে জানিয়েছেন।

সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামসুল হক রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ মঙ্গলবার বিকেলে মারা যান।

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার ৭০ তম জন্মদিন আগামীকাল বুধবার। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জ্যেষ্ঠ সন্তান শেখ হাসিনা ১৯৪৭ সালের এই দিনে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন।

শেখ হাসিনা এখন যুক্তরাষ্ট্রে আছেন। তিনি সেখানে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে জন্মদিন পালন করবেন বলে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। তাঁর জন্মদিন উপলক্ষে দেশে আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছিল। আজ সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামসুল হকের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগ ওই কর্মসূচি স্থগিত করে।

শেখ হাসিনা ১৯৮১ সালে আওয়ামী লীগের হাল ধরেন। দীর্ঘ আন্দোলন-সংগ্রামের পর ১৯৯৬ সালের জাতীয় নির্বাচনে জয়ী হয়ে প্রথমবারের মতো প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ করেন তিনি।

এরপর ২০০৮ ও ২০১৪ সালে পরপর দুবার তিনি প্রধানমন্ত্রী হন। তাঁর সরকারের আমলে বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনি ও মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধে জড়িত ব্যক্তিদের বিচার হয়েছে।

১৯৬৮ সালে বিশিষ্ট পরমাণুবিজ্ঞানী ড. ওয়াজেদ মিয়ার সঙ্গে শেখ হাসিনার বিয়ে হয়। তাঁর দুই সন্তান সজীব ওয়াজেদ জয় ও সায়মা হোসেন পুতুল।

শেখ হাসিনার ৭০তম জন্মদিন উপলক্ষে আগামীকাল বাদ জোহর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদসহ দেশের বিভিন্ন মসজিদে মিলাদ মাহফিল ও বিশেষ মোনাজাত এবং বিভিন্ন মন্দির, প্যাগোডা ও গির্জায় বিশেষ প্রার্থনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। — প্রথম আলো