সুযোগ পেলে ভালো কিছু করবো : মোসাদ্দেক

জাতীয় দলের জার্সিটা প্রথমবারের মতো পরেছিলেন চলতি বছরের জানুয়ারিতে। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ব্যাট হাতে ১৫ রানের ইনিংসও খেলেছেন। এবার ওয়ানডে দলে অন্তর্ভুক্তি। জানালেন, স্বপ্ন সত্যি হচ্ছে। সুযোগ পেলে ভালো কিছু করার চেষ্টা করবেন।

দল ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই ক্রিকেটারদের গণমাধ্যমের মুখোমুখি হওয়ার ব্যাপারে নজরদারি চলে আসে। তারপরও বাধ্য হয়েই মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অল্প কথায় নিজের অনুভূতি জানালেন সৈকত।

বললেন, ‘ছোটবেলা থেকেই স্বপ্ন দেখতাম একদিন জাতীয় দলে খেলবো। টি-টোয়েন্টি দলে যখন ডাক পেয়েছিলাম তখন অনুভূতি ছিল এক রকম,এখন ওয়ানডে দলে ডাক পেয়েছি;এই অনুভূতিটা আরেক রকম। আমি নিজে থেকে চাচ্ছিলাম আমার জাতীয় দলে অভিষেক ওয়ানডে দিয়ে হোক। এখন একটা স্বস্তি কাজ করছে। এখন মনে হচ্ছে,সুযোগ পেলে ভালো কিছু করবো।’

মূলত, নজরকাড়া ব্যাটিংস্টাইল, পারফেকশন আর ঘরোয়া ক্রিকেটের পরিসংখ্যানের উপর ভর করেই দলে জায়গা হয়েছে তার। আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে নতুন মুখ বলতে তিনিই।

জানিয়ে রাখা ভালো, প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ১৮ ম্যাচের ৩০ ইনিংসে ৭০.৮৯ গড়ে সৈকতের মোট রান এক হাজার ৯৮৫। সেঞ্চুরি সাতটি, হাফ সেঞ্চুরি ছয়টি। রয়েছে তিনটি ডাবল সেঞ্চুরিও। এছাড়া লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে ৩৭ ইনিংসে ৪৬.১০ গড়ে রান এক হাজার ২৯১।