সংসদের তিন পুলিশ ও এক আনসার করোনায় আক্রা’ন্ত

জাতীয় সংসদের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা তিন পুলিশ ও এক আনসার সদস্যের করোনা শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্তরা সংসদ ভবনের বটতলায় পুলিশের জন্য তৈরি করা ছাউনিতে থাকতেন। স্পিকার, ডেপুটি স্পিকার, হু্ইপ ছাড়াও সংসদের গেটে দায়িত্ব পালন করতেন তারা। এতে করে সেখানে যাওয়া ভিআইপিদের মধ্যে দেখা দিয়েছে আতঙ্ক।

আক্রান্তরা হলেন তিন পুলিশ সদস্য আরিফ, বাদল, মো. খালেক এবং আনসার সদস্য মো. মাসুদ। জানা যায়, ১ মে তাদের শরীরে করোনা ধরা পড়ে। তাদের সংস্পর্শে আসা সবাইকে সংসদে অবস্থিত এমপিদের বিভিন্ন অফিসে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

এ ব্যাপারে ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়া গণমাধ্যমকে জানান, ‘করোনা আক্রান্ত ওই চারজনকে প্রথমে রাজারবাগ পুলিশ লাইন হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। সেখান থেকে সিদ্ধেশ্বরী স্কুল ও কলেজের কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।’

আর হুইপ আতিকুর রহমান বলেন, ‘সংসদ ভবনের বটতলা পুলিশ রুমে মোট ৫১ জন থাকতেন। তাদের সবাইকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। স্পিকারের বাসায় ১২ জন ডিউটি করতেন। তাদেরকে সংসদের ৩নং ব্লকে রাখা হয়েছে। চারজন পুলিশ সদস্যকে এমপি হোস্টেলের ৬নং ব্লকে রাখা হয়েছে। অন্যদের ৪ নং ব্লকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা আছে।’

এদিকে, গতরাতেও করোনার উপসর্গ নিয়ে সিলেটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক পুলিশ সদস্যের মৃত্যু হয়েছে। যা ঢাকার বাহিরে এটাই প্রথম। আজ শনিবার তাকে দাফন করা হয়। এ নিয়ে করোনায় প্রাণ হারালেন পাঁচ পুলিশ সদস্য। অন্যদিকে, সারাদেশে এখন পর্যন্ত ৬৪৫ পুলিশ সদস্যের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে শুক্রবারই আক্রান্ত হয়েছে ১০৯ জন।

পুলিশ সদর দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, গতকাল শুক্রবার পর্যন্ত সারাদেশে ১ হাজার ২২৪ জন সদস্যকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। আইসোলেশনে আছেন ১৫৯ জন। সুস্থ ঘোষণা করা হয়েছে এখন পর্যন্ত ৫৫ সদস্যকে।

সূত্র: একুশে টেলিভিশন