শৈলকুপায় সরকারী জমি দখল করে ঘর তৈরীর অভিযোগ

জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: সরকারী জমিতে রাতের আধারে ঘর নির্মান করছেন শৈলকুপা উপজেলার বিজুলিয়া গ্রামের সাউদ মুন্সি নামে এক ব্যক্তি। সরকারের কাছ থেকে লিজ না নিয়ে ঘর তৈরীর কারণে ইতিপুর্বে শৈলকুপা উপজেলা প্রশাসন তা বন্ধ করে দেয়। তারপরও বন্ধ হয়নি নির্মান কাজ।

রাতের আধারে প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে চলছে নির্মান কাজ। উপজেলা প্রশাসন থেকে বলা হচ্ছে বন্দোবস্ত না নেওয়ায় সাউদ মুন্সিকে কারণ দর্শাণো নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

সরেজমিন পরিদর্শন করে জানা গেছে, শৈলকুপার বিজুলিয়া গ্রামের সাউদ মুন্সি শৈলকুপা পৌরসভা এলাকার মহিলা ডিগ্রি কলেজের সামনে রাস্তাসংলগ্ন জমি দখল করে ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান নির্মান করছেন।

এলাকাবাসী বিষয়টি স্থানীয় সহকারী কমিশনার ভুমি কর্মকর্তাকে জানালে পৌর ভুমি অফিসের তহশীলদার কর্তৃপক্ষের নির্দেশে বন্ধ করে দেন।

তারপরও বন্ধ হয়নি নির্মাণ কাজ। রাতের আধারে প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে কাজ চালানো হচ্ছে। সাউদ মুন্সি গত এপ্রিল মাসের শেষদিকে সরকারী জমি দখল করে অবৈধ ভাবে ঘর নির্মাণ কাজ শুরু করলে স্থানীয় প্রশাসন তা বন্ধ করে দেয়।

এলাকাবাসীর অভিযোগ আওয়ামীলীগের প্রভাবশালী ব্যক্তির যোগসাজসে সাউদ মুন্সি সরকারী জায়গা দখল করার কারণে প্রশাসন নীরবতা ভুমিকা পালন করছে।

অনুমোদন ছাড়া সরকারী জমিতে ঘর নির্মাণ করার বিয়য়ে জানতে চাইলে সহকারী কমিশনার ভুমি সুমি মজুমদার জানান, উল্লেখিত স্থান বরাদ্দ চেয়ে সাউদ মুুন্সি আবেদন করেছেন। তবে ওই জমি এখন পর্যন্ত কাউকে বরাদ্দ দেয়া হয়নি।

প্রাপ্ত আবেদনের ভিত্তিতে কর্তৃপক্ষ উপযুক্ত দরিদ্র মানুষকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বরাদ্দ দেবে বলেও তিনি জানান। এখন প্রশ্ন উঠেছে সাউদ মুন্সি কি দরিদ্র মানুষ ?