মার্চ মাস থেকেই এক লাখ টাকা মাসিক বেতন পাচ্ছি : আকবর আলী

বাংলাদেশ ক্রিকেটে একমাত্র বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক আকবর আলী। যিনি অধিনায়ক হিসেবে গত ফেব্রুয়ারি মাসে দক্ষিণ আফ্রিকার পচেফস্ট্রুমে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ ট্রফি জিতে দেশের মুখ উজ্জ্বল করেন। বিশ্ব ক্রিকেটকে জানিয়ে দেন ‘আমরাও পারি, জিততেও পারি’। অসাধারণ পারফরমেন্স দেখিয়ে নিজেদের ক্রিকেট ইতিহাসে প্রথমবার বিশ্বকাপ ট্রফি জিতে আকবর বনে যান ইতিহাসের সেই বিখ্যাত চরিত্র ‘আকবর দ্য গ্রেট’! তিনি যে সত্যিই ‘আকবর দ্য গ্রেট’ তার প্রমাণ ফের দিলেন বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক।

প্রায় তিন মাস আগে ক্যারিয়ারের সেরা অর্জন তুলে নিয়েছিলেন বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের অধিনায়ক আকবর আলী। তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ জিতেছিল যুব বিশ্বকাপের শিরোপা। দেশের ক্রিকেট ইতিহাসে এখন পর্যন্ত এটাই একমাত্র বড় সাফল্য। বিশ্বকাপের ফাইনালে ভারতের বিপক্ষে প্রায় আড়াই ঘণ্টার দূর্দান্ত ইনিংস খেলে ৭৭ বলে ৪৩ রান করে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দিয়েছিলেন অধিনায়ক আকবর। সেই ম্যাচে ব্যবহৃত ব্যাট, জার্সি, হেলমেট, গ্লাভস তথা সবকিছুই তার কাছে অনেক বেশি মূল্যবান।

তবে এখন দেশের ক্রান্তিলগ্নে নিজের প্রিয় ও মূল্যবান জিনিসগুলোর মধ্যে দুইটি নিলামে তোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আকবর আলী। সেই ফাইনাল ম্যাচে পরা জার্সি এবং বিশ্বকাপজয়ী ইনিংস খেলা ব্যাটিং গ্লাভস তিনি নিলামে তুলবেন। নিলাম থেকে পাওয়া অর্থের পুরোটাই তিনি খরচ করবেন দুর্গতদের সহযোগিতায়। বৃহস্পতিবার দুপুরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এ ঘোষণা দেন আকবর।

ফেসবুকে আকবর লিখেছেন, ‘নিঃসন্দেহে অ-১৯ বিশ্বকাপ জয় এখন পর্যন্ত আমার জীবনের সেরা অর্জন। এই সংকটকালীন সময়ে সেই অর্জনের দু’টি স্মারক (১.ফাইনালের ম্যাচ জার্সি, ২.ফাইনালে ব্যবহৃত ব্যাটিং গ্লাভস) নিলামে তুলতে যাচ্ছি। নিলাম থেকে প্রাপ্ত পুরো অর্থটাই ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ব্যয় করা হবে।’ এদিকে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিবি) পাশেই পাচ্ছেন আকবর আলীরা। বিশ্বকাপ জেতায় তাদের দুই বছরের জন্য বেতনভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল বিসিবি। বর্তমান সময়ের কারণে সেটি আটকে যায়নি। বরং মার্চ মাস থেকেই মাসিক ১ লাখ টাকা করে বেতন পাচ্ছেন তারা।

তথ্যটি আগেই নিশ্চিত করেছেন অধিনায়ক আকবর আলী। মুঠোফোনে তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ, আমরা মার্চ মাস থেকেই মাসে একলাখ টাকা করে বেতন পাচ্ছি। ওটা চালু হয়ে গেছে।’