মাত্র ছয় রানের জন্য হাফ সেঞ্চুরি ফসকালো মাশরাফির

১৬৫ ম্যাচের দীর্ঘ ক্যারিয়ারে ফিফটি মাত্র একটি। সেটাও ১০ বছর আগে। ২০০৬ সালের ১৭ ডিসেম্বর। ঢাকা শেরেবাংলায় স্কটল্যান্ডের বিরুদ্ধে ২৭ বলে দুই বাউন্ডারি ও পাঁচ ছক্কায় ৫১ রানের হার না মানা ইনিংস উপহার দিয়েছেন নড়াইল এক্সপ্রেস।

এছাড়া ভারতের বিপক্ষে ঢাকায় ২০০৪ ও ২০০৭ সালে যথাক্রমে ৪২ ও ৩৯ রানের দুটি ঝড়ো ইনিংস রয়েছে তার। প্রথমটি ২২ বলে। একটি বাউন্ডারি ও পাঁচ ছক্কায়। আর পরেরটি ২০ বলে সমান তিনটি করে বাউন্ডারি ও ছক্কায় ৩৯ রান।

রোববার আবারও পঞ্চাশের খুব কাছাকাছি গিয়েছিলেন টাইগার অধিনায়ক। কিন্তু শেষ দুই ওভারে মাত্র দু’বার স্ট্রাইক পাওয়ায় নিজেকে ছাড়িয়ে যাবার সম্ভাবনা ধুলিস্যাৎ হয়ে যায় তার।

ইংল্যান্ডের অফস্পিনার মঈন আলি ও পেসার ডেভিড উইলির বলে দুটি বিশাল ছক্কা হাঁকানোসহ শেষ অবধী ২৯ বলে ৪৪ রান করে রান আউট হন টাইগার ক্যাপ্টেন। ছক্কা ছিল তিনটি, বাউন্ডারি ২টি। এটা তার ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ।

কাকতালীয়ভাবে ১০ বছর আগে ২০০৬ সালের ১৭ মার্চ বগুড়ার শহীদ চান্দু স্টেডিয়ামে কেনিয়ার বিরুদ্ধে ১৬ বলে ৪৪ রানে নট আউট ছিলেন মাশরাফি।