বিরাটের কি গোপন কথা জানেন অানুষ্কা!

বিরাট কোহলি ব্যাটে ব্যর্থ হলেই গোটা ভারত অানুষ্কা শর্মাকে দোষারোপ করে। অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে বিরাট ব্যর্থ হয়ে ফিরে যাওয়ার পরেই ভারতীয় দলে বিপর্যয় নেমে আসে। ভারতও টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে যায়। আর তার পরেই গোটা দেশ অানুষ্কা শর্মাকে ভিলেন বানিয়ে দেয়।

কলকাতায় এসে বিরাট কোহলি অবশ্য বিস্ফোরণ ঘটিয়েছিলেন। পরে অানুষ্কাও তাঁর সমালোচকদের একহাত নেন। বলিউডের এই জনপ্রিয় অভিনেত্রী খুল্লমখুল্লা জানান, কিছু হলেই মেয়েদের উপরে দোষ চাপানোটা সহজ ব্যাপার।

তার পরেই বিরাট কোহলির জীবনের এক দুঃখজনক অধ্যায়ের কথা বলেছেন অানুষ্কা। ‘বাবা মারা যাওয়ার পরেও তো খেলেছে বিরাট’, বলেন এই অভিনেত্রী।

সময়টা ২০০৬। দিল্লি বনাম কর্নাটকের মধ্যে রনজি ট্রফির ম্যাচ চলছে। আর সেই ম্যাচ চলাকালীনই বিরাটের কাছে খবর পৌঁছয় তাঁর বাবা প্রেম কোহলি মারা গিয়েছেন।

বিরাটের বাবার তখন খুবই অল্প বয়স। মাত্র ৫৪ বছর বয়সেই তিনি পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে চলে যান। বিরাট কিন্তু সেই দুঃখের মুহূর্তেও ক্রিকেটকে ছেড়ে থাকেননি। দলের বিপদে ব্যাট হাতে নেমে পড়েছিলেন। আউট হওয়ার পরেও তা নিয়ে ভাবনাচিন্তা করেছেন।

অানুষ্কার প্রেমিক বিরাট। ভারতের টেস্ট দলের অধিনায়কের এই কথা তো জানবেনই অানুষ্কা। আর সেটা সবর্সমক্ষে বলেওছেন তিনি।

অবশ্য বিরাট কোহলির নাম এখন সবার ঘরে ঘরে। বিরাটের উত্থান, তাঁর কেরিয়ার, জীবনের বিভিন্ন মোড় সবারই জানা। তাই অানুষ্কা না বললেও বিরাটোর জীবনের এই দুঃখের ঘটনা সবারই জানা। দেশের প্রতি, দলের প্রতি বিরাটের দায়বদ্ধতা বোঝানোর জন্যই অানুষ্কা নতুন করে তা বলেছেন। — এবেলা