বাড়তি দায়িত্ব নিতে প্রস্তুত মোশাররফ

আফগানিস্তানের বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচে দুই উইকেটে হেরেছে বাংলাদেশ। প্রথম ম্যাচেও হারতে হারতে জয় পেয়েছিল তারা। স্লো উইকেটে ব্যাটসম্যানদের সংগ্রামের পাশাপাশি বোলিংয়েও সাকিব-তাইজুল ছাড়া সুবিধা করতে পারেনি কেউ। তাই তৃতীয় ম্যাচে মোশাররফ হোসেন রুবেলকে দলে অন্তর্ভুক্ত করেছে টিম ম্যানেজমেন্ট। শেষ মুহূর্তে কেন দলে নেয়া হয়েছে তা ভালো করেই জানেন রুবেল। আর এ দায়িত্ব নিতে প্রস্তুত রয়েছেন বলেও জানান এ বাঁ-হাতি স্পিনার।

বৃহস্পতিবার টাইগারদের টিম হোটেল রেডিসনে রুবেল সাংবাদিকদের বলেন, ‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অনেক চ্যালেঞ্জিং। আর আমি যে মুহূর্তে দল এসেছি তাতে আরেকটু কঠিন হবে। আমরা শেষ ম্যাচটা হেরে গিয়েছি। তো সে ক্ষেত্রে সবদিকেই একটু বাড়তি দায়িত্ব নিতে হবে আর কি। তবে সবকিছুর জন্য আমি প্রস্তুত আছি।’

আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথম দুই ম্যাচের সময় জাতীয় লিগ খেলতে বগুড়ায় ছিলেন রুবেল। তবে নিয়মিত খোঁজ রেখেছেন জাতীয় দলের। আফগান স্পিনারদের উইকেট থেকে সুবিধা তুলে নিতে দেখেছেন। তাদের বিপক্ষে বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের সংগ্রামও দেখেছেন। তাই এমন উইকেট থেকে নিজেদেরও সুবিধা আদায় করতে হবে বলে জানেন রুবেল নিজেও।

‘আফগানিস্তান দুই ম্যাচেই ভালো খেলেছে। একটা ম্যাচ তো জিতেছেই। তারা ব্যাটিংয়েও অনেক ভালো, দুজন লেগস্পিনার অনেক ভালো করছে। আমার মনে হয় তাই আমার বাড়তি দায়িত্ব। তাদের বিপক্ষে লড়াই করে যতটুকু উইকেট নেওয়া যায়, সেই চেষ্টাটা থাকবে।’

বোলিংয়ের পাশাপাশি ব্যাটিংটাও দারুণ করেন রুবেল। ঘরোয়া লিগে গত কয়েক বছর ধরেই নিয়মিত রান করে যাচ্ছেন তিনি। তাই ব্যাটসম্যানরা ব্যর্থ হলে শেষ দিকে এসে ব্যাট হাতেও দায়িত্ব নিতে প্রস্তুত আছেন বলে জানান এ অলরাউন্ডার। যে কোন ভাবে দলে অবদান রাখাই তার দায়িত্ব বলে উল্লেখ করেন ৩৪ বছর বয়সী এ তারকা।

‘অনেক সময় দেখা যায় শুরুতে উইকেট পড়ে যায়। আবার দেখা যায় হাতে দুই-তিনটি উইকেট রয়েছে, ওভার আছে সাত-আটটি। এই সময়ে ম্যাচ জেতার ক্ষেত্রে বেশ ভেজাল হয়ে যায়। তো ওই সময়ে যদি আমি অবদান রাখতে পারি তাহলে দলের জন্য হয়তো বাড়তি সুবিধা হবে। আর আমি জানি না- আমাকে কোন পজিশনে ব্যাটিংয়ে নামানো হবে। তবে যে জায়গাতেই নামানো হোক, আমি প্রস্তুত। যদি নয়-দশেও নামি তাহলেও চেষ্টা করবো।’

উল্লেখ্য, ২০০৮ এর মার্চে সর্বশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছিলেন মোশাররফ রুবেল। তিন বছর আগেও একবার জাতীয় দলে ডাক পেয়েছিলেন তিনি। তবে ওই সময় কোনো ম্যাচ খেলার সুযোগ হয়নি তার।

জাগো নিউজ