বাবা থাকলে খুব খুশি হতেন

খবরটা আগেই পেয়েছেন। কিন্তু উত্তেজনার জের যেন এখনও কাটেনি। খুব ফ্রেশ লাগছে- এটুকু বলতে বারকয়েক আটকে গেলেন। অবৈধ বোলিং অ্যাকশনের অভিশাপ থেকে অবশেষে মুক্তি পেলেন স্পিনার আরাফাত সানি। কিন্তু এমন একটা সময়ে পাশে নেই নিজের বাবা।

অবৈধ বোলিং অ্যাকশন পরীক্ষা থেকে মুক্তি পেয়েছেন পেসার তাসকিন আহমেদ ও স্পিনার আরাফাত সানি; ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) আনুষ্ঠানিকভাবে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে নিশ্চিত করার পরপরই  নিজের প্রতিক্রিয়া জানান সানি।

তিনি বলেন, ‘গত কয়েকটা মাস অনেক কষ্ট করেছি। ভালোকিছু হবে সে ব্যাপারে আশাবাদী ছিলাম। কিন্তু পরীক্ষা দেওয়ার পর অনেক দুশ্চিন্তা ছিলো। এখন খুব ফ্রেশ লাগছে।’

এতো খুশির মধ্যেও মন খারাপ আরাফাত সানির। গেল আগস্টের ২১ তারিখে নিজের বাবাকে হারান। ছেলের অ্যাকশন নিয়ে সবসময়েই দুশ্চিন্তা করতেন। কিন্তু যখন সুখবরটি এলো তখনই তাকে পাশে পাচ্ছেন না বাঁ-হাতি এই স্পিনার।

এ প্রসঙ্গে বললেন, ‘বাবা বেঁচে থাকলে অবশ্যই খুব খুশি হতেন। কিন্তু কি করার, দুনিয়ার নিয়ম এটা। তার জন্য দোয়া করা ছাড়া তো আর কিছু করার নেই আমার।’

এর আগে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশের হয়ে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে খেলতে গিয়ে অবৈধ বোলিং অ্যাকশনের ফাঁদে পরেন আরাফাত সানি ও তাসকিন আহমেদ। পরবর্তীতে পরীক্ষা দিলে তাদের অ্যাকশন অবৈধ বলে প্রমাণিত হয়। সে কারণেই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের বোলিং অ্যাকশন রিভিউ কমিটির তত্ত্বাবধানে গেল তিনমাস কঠোর পরিশ্রম করেছেন জাতীয় দলের এই দুই বোলার।

সর্বশেষ চলতি সেপ্টেম্বরের আট তারিখে অস্ট্রেলিয়ার ব্রিসবেনে অ্যাকশন দেন তাসকিন-সানি। সেটারই ফলাফল আসলো শুক্রবার। — প্রিয়