বাংলাদেশের চেয়ে ভারতকে নিরাপদ মনে হলো মরগানের!

নিরাপত্তা ইস্যু দেখিয়ে বাংলাদেশ সফরে আসেনি ইংল্যান্ড ওয়ানডে দলের অধিনায়ক ইয়ান মরগানের। তার পরিবর্তে টাইগারদের বিপক্ষে একদিনের ম্যাচে অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করেন জস বাটলার।

বাংলাদেশ সফর শেষে ভারতে যাবে ইংল্যান্ড। ওই সফরে ইংলিশদের সীমিত ওভারে নেতৃত্ব দেবেন মরগান। এটা নিশ্চিত বলাই চলে। দলের সহকারী কোচ পল ফারব্রেসের কথাতে অনেকটা স্পষ্ট। এছাড়া মরগানও তো ভারত সফরে আসতে রাজি। তার মানে, বাংলাদেশের চেয়ে ভারতকে নিরাপদ মনে হলো তার!

অথচ বাংলাদেশ সফরে আসার আগে ইংল্যান্ডের তারকা অলরাউন্ডার মঈন আলী বলেছিলেন, বিশ্বের এমন কোনো স্থান নেই, যাকে পূর্ণ নিরাপদ বলা যাবে। এক দেশের দুই খেলোয়াড়ের চিন্তা দুই ধরনের। এটা অস্বাভাবিক নয়। কারণ সাহসের জায়গাটাও তো ব্যক্তিভেদে ভিন্ন।

গত ৩০ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশে পা রাখে ইংল্যান্ড দল। এরপর থেকে কঠোর নিরাপত্তায় রয়েছে তারা। ইংল্যান্ডের খেলোয়াড় থেকে কোচ-স্টাফরা এদেশের নিরাপত্তা ব্যবস্থায় দারুণ খুশি। তাদের চোখে, বাংলাদেশের নিরাপত্তা বিশ্বমানের। যদিও মরগানের কাছে তার শঙ্কাজনকই থাকলো।

বাংলাদেশের প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভারত। ওখনকার নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে ভালো মনে হওয়ায়ই তো আসতে চাচ্ছেন মরগার। নাকি আইপিএলে টাকার অঙ্ক তার কাছে অনেক বড়? ওখানে খেলতে না আসলে টুর্নামেন্টটি থেকে ছিটকে পড়তে পারেন।

নাকি টানা দুটি সফরে অনীহা প্রকাশ করলে ইংল্যান্ড দলে জায়গা হারাতে পারেন ‘ভিনদেশী’ আয়ারল্যান্ড বংশোদ্ভূত এই ক্রিকেটার? এসব প্রশ্নের অজানা উত্তরগুলো মরগানই অবশ্য ভালো জানেন।