প্রত্যেকটা ক্রিকেটারেরই বাজে সময়ের সম্মুখীন হতে হয় : সৌম্য

বিপিএল টি-টোয়েন্টি ২০১৫ থেকেই ক্যারিয়ারের বাজে ফর্ম যাচ্ছে সৌম্য সরকারের। ২০১৫ সালে ওয়ানডে ক্রিকেটে সেরা সময় পার করেন তিনি। তাঁর আশা খুব শিঘ্রই আবারো সেই চিরচেনা রুপে ফিরে আসবেন তিনি।

১৪ অক্টোবর এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে মিডিয়াকে জানান , “আমি ব্যাটিংয়ে কঠোর পরিশ্রম করছি। প্রত্যেকটা ক্রিকেটারই ক্যারিয়ারে বাজে সময় যায়। এটি আমার জন্য একটু তাড়াতাড়িই এসেছে। কিন্তু আমি মনে এই অবস্থা থেকে যত দ্রুত ওভারকাম করতে পারবো, ততই আমার জন্য মঙ্গল। এই সময়টা আমাকে অনেক কিছু শিখিয়েছে। আশা করছি এটা আমার ক্যারিয়ার আরো দীর্ঘ করতে সহযোগিতা করবে।”

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় প্রস্ততি ম্যাচের জন্য অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন এই ২৩ বছর বয়সী বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান। ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি অধিনায়ক হিসেবে নিজেকে প্রমান করতে চান তিনি।

তিনি জানান, “হ্যাঁ, সত্যি ভালো লাগছে দলকে নেতৃত্ব দিবো। আমি মনে করি নতুন এই দায়িত্বটা উপভোগ করবো। আমার স্বপ্ন ছিল কোন একদিন দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিবো এবং সেটি প্রমান করার সুযোগ পেয়েছি।আমার বিশ্বাস অধিনায়কের দায়িত্বটা আমি উপভোগ করবো।”

নিজেকে প্রমাণ করতে আফগানিস্তান সিরিজে সুযোগ দেওয়া হয়েছিলো সৌম্য সরকারকে কিন্তু ফের ব্যর্থ হওয়ায় ইংল্যান্ড সিরিজে একাদশে খেলার সুযোগ হয়নি তাঁর। জাতীয় দলে ক্যারিয়ারটা যেভাবে শুরু করেছিলেন আবারো সেভাবে করতে চান তিনি।

“বর্তমানে দলে খেলা অনেক চ্যালেঞ্জের ব্যাপার। দলে তোমাকে জায়গা পাকাপোক্ত করতে হলে ভালো খেলার কোন বিকল্প নেই। জাতীয় দলের জন্য যখন খেলি তখন আমার জন্য প্রত্যেকটা ম্যাচেই আমার জন্য চ্যালেঞ্জিং। কারণ অনেক ওপেনার রয়েছে যারা ভালো খেলছে ।

সাধারণত চ্যালেঞ্জটা আমার নিজের মধ্যেই, কিভাবে আগের ম্যাচের চেয়ে ভালো খেলা যায়। এভাবেই আমি নিজেকে ম্যাচের আগে প্রস্তুত করি। আমি চেস্টা করবো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে শুরুতে যেভাবে খেলেছি ঠিক সেইভাবেই প্রস্ততি ম্যাচেও খেলতে।” —  বিডিক্রিকটিম