পুরাতন কাপড়েই ফ্যাশন

পাল্টে ফেলতে চান একঘেয়ে লুক, অথচ সংগ্রহে বেশিরভাগই সাদামাঠা পোশাক! তাদের জন্যই সাধারণ পোশাকে এক্সপেরিমেন্ট করার সহজ টিপস দেয়া হলো।আলমারি খুললেই মনে হয় সব পোশাকই পরা হয়ে গিয়েছে? ঘাবড়াবেন না। ক্রেডিট কার্ড নিয়ে শপিংয়ে যাওয়ারও প্রয়োজন নেই। আরমারিতে যা আছে, তা দিয়েই তৈরি করতে পারেন নতুন লুক। বদলে ফেলতে পারেন স্টাইল স্টেটমেন্ট।

যে একরঙা লম্বা ঝুলের টপের কোমরের অংশটা চাপা, সেগুলোর সঙ্গে শুধু কোমরে একটা ট্রাইবাল স্টাইলের চওড়া বেল্ট লাগিয়ে নিন। অনেক বেশি দৃষ্টি আকর্ষণ করবে আপনার সাজ।  তাড়াহুড়ো করে অফিস বেরতে হবে। একটা শার্ট আর জিন্স গলিয়েই বেরিয়ে পড়লেন।

ব্যস, এটাই আপনার রোজকার সাজ হয়ে গেল। কিন্তু খুব সহজেই বদলে ফেলতে পারেন এই বোরিং লুক। ভিতরে স্প্যাগেটি পরে তার উপর চাপিয়ে নিতে পারেন রঙিন শার্ট। অফিস থেকে যদি সোজা কোনও পার্টিতে যাওয়ার থাকে, তাহলে শার্টের নীচের অংশের বোতাম না আটকে বেঁধেও নিতে পারেন। রোজকার সাজে পরিবর্তন আসতে বাধ্য।

ডেনিমের একঘেয়েমি কাটানোর জন্য ব্যবহার করতে পারেন বিভিন্ন রঙের জেগিংস। এমনকী, একরঙা টপের সঙ্গে প্রিন্টেড জেগিংসও পরতে পারেন। সঙ্গে যদি কালারফুল স্নিকার্স পরে নেন, কেল্লাফতে!

এখন বাজারে হরেক রকমের স্কার্ফ পাওয়া যায়। কয়েকটা রেখে দিতে পারেন সংগ্রহে। রোজকার পোশাকের একঘেয়েমি কাটিয়ে ফেলার জন্য এগুলো উপযুক্ত। লম্বা কুর্তা কিংবা স্কার্টের সঙ্গে নিয়ে নিতে পারবেন ভাইব্র্যান্ট কালারের যে কোনও স্কার্ফ। শুধু বাঁধার কায়দাটা মাঝে মাঝে বদলে ফেলুন। ইউটিউব দেখে শিখে নিন টিপ্স!

একরঙা টি-শার্ট আর জিন্স পরেই বেরিয়ে যেতে ইচ্ছে করছে? অথচ বাইরে বেরিয়ে অন্তত ১০জনকে দেখবেন একই পোশাকে, সেটাও জানেন! সেক্ষেত্রে পোশাকের বিপরীত রঙের একটা স্টেটমেন্ট নেকপিস ঝুলিয়ে নিন গলায়। ব্যস! লুক পাল্টে যাবে মুহূর্তেই।

জুতোর দিকে একটু নজর দিলেই বদলে যেতে পারে আপনার স্টাইল স্টেটমেন্ট। যে কোনও সাদামাঠা ড্রেসের সঙ্গে গাঢ় রঙের জুতো পরে নিন। প্রিন্টেড জুতোও পরতে পারেন একরঙা জামার সঙ্গে।

যে কোনও জামার সঙ্গে নিতে পারেন একটা বড়সড় হোবো ব্যাগ। কিংবা টোট’ও। আবার ঝোলাও কিন্তু ঘুরেফিরে চলে আসে ট্রেন্ডে। জোগা়ড় করে ফেলতে পারলে আর দেখে কে? খুব সহজেই পেয়ে যাবেন স্মার্ট লুক।

কলেজ ইউনিভার্সিটিতে ক্যাজুয়াল সাজই রোজ ভাল লাগে। তবে মাঝে মাঝে একটু এক্সপেরিমেন্ট করতেই পারেন। সাধারণ টপের বদলে গ্রাফিক প্রিন্টেড ক্রপ টপ পরতে পারেন কখনও। তবে তার আগে কলেজের ড্রেস কোড থাকলে সেটায় একবার চোখ বুলিয়ে নেবেন।