তামিমের ৫ হাজার

হিসাবটা শুরু হয়েছিল ইংল্যান্ড সিরিজের শুরু থেকেই। মাত্র ৬৯ রান করতে পারলেই ওয়ানডেতে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে পাঁচ হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করবেন তামিম ইকবাল। কিন্তু মিরপুরে সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে পারেননি তিনি। ঘরের মাঠ জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অপেক্ষা ঘোছান তামিম।

এ সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে ১৭ ও ১৪ রান করার পর মাইলফলক ছুঁতে চট্টগ্রামে তামিমের প্রয়োজন ছিল ৩৮ রান। ঘরের মাঠে দর্শকদের হতাশ করেননি তিনি। দু’দিনের বৃষ্টির কারণে উইকেট কিছুটা কঠিন হওয়ায় বেশ দেখেশুনে সূচনা করেন তিনি।

ক্রিস ওকসের করা ২২তম ওভারের পঞ্চম বলে চার মেরে পাঁচ হাজার স্পর্শ করেন তামিম। পরের বলে আবার চার মেরে জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের গ্যালারি উত্তাল করে তুলেছিলেন বাঁহাতি এ ওপেনার। তবে মাইলফলক ছোঁয়ার পর আর বেশিক্ষণ উইকেটে থাকতে পারেননি তামিম। ৪৫ রান করে লেগস্পিনার আদিল রশিদের গুগলিতে বোকা বনে যান তামিম। মিডঅফে সহজ ক্যাচ দিয়ে আসেন।

ওয়ানডেতে বাংলাদেশের হয়ে প্রথম এক হাজার ও দুই হাজার স্পর্শ করেন খালেদ মাসুদ পাইলট। তিন হাজার মোহাম্মদ আশরাফুলের। তবে চার হাজারে পেঁৗছা নিয়ে তামিম ও সাকিবের মধ্যে ভালোই লড়াই হয়েছিল। শেষ পর্যন্ত অবশ্য সাকিবই প্রথম পেঁৗছান চার হাজারে। তবে বিশ্বকাপের পর থেকে দুর্দান্ত ফর্মে আছেন তামিম।

পাঁচ হাজারে পেঁৗছানোর সঙ্গে সেঞ্চুরিতেও পেছনে ফেলেছেন সাকিবকে। আর এ সময়টাতে টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানরা নিয়মিত রান পাওয়ায় খুব বেশি ব্যাটিংয়ের সুযোগ পাননি সাকিব। তাই একটু পিছিয়ে পড়েছেন বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার। — সমকাল