কী আছে আইসিসির কোড অব কন্ডাক্টে ?

রোববার ইংল্যান্ড দলের ইনিংসের ২৮তম ওভারে তাসকিন আহমেদের বলে এলবিডব্লিউ আবেদনে আম্পায়ার সাড়া না দিলে রিভিউ নেয় বাংলাদেশ। এর ফল বাংলাদেশের পক্ষে আসে।

এ সময় উল্লাসে ফেটে পড়েন মাশরাফি-তাসকিনরা। ওই উদযাপনে অসন্তুষ্ট হয় বাটলার। এ নিয়ে বাংলাদেশের কয়েকজন ক্রিকেটারের সঙ্গে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয় বাটলারের।

সোমবার আইসিসির প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মাশরাফি ও সাব্বির আইসিসির কোড অব কন্ডাক্টের ২.১.৭ ধারা ভঙ্গ করেছেন। এবার দেখে নেওয়া যাক কী আছে সেই ধারায়।

আইসিসি বলছে, এই ধারা তখনই ভঙ্গ হবে যখন আন্তর্জাতিক ম্যাচে কোনও ব্যাটসম্যান আউট হওয়ার পরই কোনও ক্রিকেটার তাকে লক্ষ্য করে এমন কোনও ভাষা, দৈহিক অঙ্গভঙ্গি করা-যা ঐ ব্যাটসম্যানকে অযাচিত আচরণে উস্কে দেবে।

এখানে মাত্রাতিরিক্ত বাঁধনহারা উদযাপনের কথাটিও উল্লেখ করা আছে আইসিসির বিধি মালায়। একই সঙ্গে ব্যাটসম্যানকে মৌখিকভাবে উস্কে দেওয়ার বিষয়টিও রয়েছে।

অপর দিকে বাটলার দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন বিধিমালা ২.১.৪ ভঙ্গের। যেখানে উল্লেখ রয়েছে আন্তর্জাতিক ম্যাচে এমন ভাষা ও অঙ্গভঙ্গি ব্যবহার যেটা খুবই অশালীন ও অপমানজনক।

উল্লেখ্য, বিধি ভাঙায় মাশরাফি ও সাব্বিরকে ম্যাচ ফির ২০ শতাংশ জরিমানা করা হয়েছে। আর বাটলারকে করা হয়েছে মৌখিক তিরস্কার।