আস্থার প্রতিদান দেবেন শফিউল

সর্বশেষ ওয়ানডে ম্যাচটি খেলেছিলেন ২০১৪ সালে, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। কিন্তু নিজের তৃতীয় ওভারের প্রথম বলটি করার পরই ইনজুরিতে পড়েন শফিউল ইসলাম। আবারও ফিরলেন। আফগানিস্তান সিরিজে তাকে দলে ভিড়িয়েছে নির্বাচকরা। জাতীয় দলের এই পেসার সুযোগটাকে কাজে লাগাতে চান। সবার আস্থার প্রতিদান দিতে চান।

জাতীয় দলের হয়ে শফিউল সর্বশেষ মাঠে নেমেছিলেন সেই জিম্বাবুয়ে সিরিজেই। এরপর ২০১৫ ওয়ানডে বিশ্বকাপে ডাক পড়ে তার। আল আমিন হোসেনের বদলি হিসেবে। ওখানেই শেষ, মাঠে নামা হয়নি কোন ম্যাচে। এবারের সুযোগটাকে তাই ‘শেষ সুযোগ’ মানছেন ৫২ ওয়ানডেতে ৫৮ উইকেট নেওয়া শফিউল।

দৈনিক কালের কন্ঠকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি বলেছেন, ‘টিম ম্যানেজমেন্ট,নির্বাচক যারা আমাকে দলে ডেকেছেন সবার আস্থার প্রতিদার দিতে চাইবো। আমার জন্য আফগানিস্তান সিরিজ গুরুত্বপূর্ণ। এখানে ভালো করতে না পারলে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তো সুযোগ পাবো না।’

শফিউলের সর্বশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার পর এখন পর্যন্ত আমূল পরিবর্তন এসেছে বাংলাদেশ দলে। প্রতিনিয়ত চ্যালেঞ্জ এখানে। জায়গা ধরে রাখাটাও তাই সহজ নয়। এমন অবস্থায় নিজের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগাতে চান শফিউল। জাতীয় দলে ফেরাটা তার জন্য নতুন শুরু।

বললেন, ‘জাতীয় দলে পেসারদের প্রতিদ্বন্দ্বিতা বেড়েছে অনেক। আর আমিও আগের চেয়ে অভিজ্ঞ হয়েছি। আশা করি,সুযোগ পেলে পারফর্ম করতে পারবো। পারফর্ম করতে না পারলে জায়গা ধরে রাখতে পারবো না। সব মিলিয়ে জাতীয় দলে আবার ডাক পাওয়া আমার জন্য নতুন শুরু।’ — প্রিয়